মেয়েদের যে ৫টি অঙ্গ বড় হলে নারীদের সৌভাগ্যবতী ভাবা হয়..

পুরুষদের বাঁ পাঁজরের হাড় নিয়ে নারীদের আল্লাহ্ সৃষ্টি করেছেন। মানুষকে কীভাবে সৃষ্টি করা হয়েছে, সেটি আল্লাহতায়ালা বলে দিয়েছেন। মানুষকে আল্লাহ রাব্বুল আলামিন বীর্য থেকে সৃষ্টি করেছেন। পৃথিবীতে নারীদের অমূল্য অবদান রয়েছে কারণ তাদের থেকেই সৃষ্টি হয় নতুন প্রাণের। আজ আপনাদের জানাবো কোন ধরনের নারীরা তাদের পরিবার ও স্বামীর (husband) জন্য সৌভাগ্যশালী হন। শাস্ত্রমতে নারীদের নির্দিষ্ট কয়েকটি অঙ্গ বড় হলে তা পরিবারে সুখ-সমৃদ্ধি নিয়ে আসে। আসুন দেখে নেওয়া যাক-
১.বড় চোখ- যেসব মহিলার চোখ বড় হয় তাদের দেখতে তো সুন্দরী লাগেই, এছাড়াও এনারা স্বামীকে (husband) অত্যন্ত ভালোবাসেন। যে বাড়িতে এনারা যান সেখানে ধন-সম্পদের আধিক্য ঘটে। এই ধরণের মহিলারা কখনই নিজের স্বামীকে (husband) ঠকান না।

২.লম্বা নাক- যেসব মহিলাদের(female) নাক লম্বা হয় তাদের সব রকম সমস্যা শান্ত মাথায় সমাধান করার ক্ষমতা থাকে। এনাদের টাকা খরচ করার প্রবণতা থাকে, তবে তারা কখনই বাজে খরচ  করেন না।

৩.লম্বা আঙুল- যেসব মহিলাদের (female)আঙুল লম্বা হয় তারা অত্যন্ত বুদ্ধীমতি হন, আর তাদের লেখা-পড়া করার দারুণ সখ থাকে। এই ধরণের মহিলারা টাকা-পয়সা কম খরচ করেন এবং টাকা-পয়সা পেলে চেষ্টা করেন তা কিভাবে বাড়ানো যায়।

আরো পড়ুন  যে সমস্ত খাবার খালি পেটে খাবেন এবং কোনগুলো ভুলেও খাবেন না তা জেনে নিন

৪.লম্বা চুল- যেসব মহিলাদের(female) চুল লম্বা তাদের বরাবরই পরিবারের জন্য অত্যন্ত ভাগ্যশালী মনে করা হয়। এই ধরণের মহিলারা যে পরিবারে যান সেই পরিবারে কখনোই টাকা-পয়সার অভাব হয়না।

৫.লম্বা গলা- যেসব মহিলার লম্বা গলা আছে তার অত্যন্ত সৌভাগ্যের অধিকারীনি হন।

যেভাবে সহ’বাস করলে মেয়েরা বেশি আরাম পায়

‘ড’গি স্টাইল সহ’বাস” বিষয়টি নিয়ে ভয় পাবার কিচ্ছু নেই। ডগি স্টাইল সবাস বলতে এটাকেই বোঝায় যে পুরুষটি পেছন দিক থেকে নারীর দেশে পুরুষাঙ্গ প্রবেশ করাবেন। অনেকেই “অ্যানাল সহবাস”(physical relation) বা নিতম্বে (মূলত মলদ্বারে) পুরুষাঙ্গ প্রবেশ করিয়ে শারীরিক মিলনের সাথে “ডগি স্টাইল সহবাস”কে গুলিয়ে ফেলেন। তবে এটা জরুরি নয় যে ডগি স্টাইল সহবাস করলে অ্যানাল সহবাস (physical relation) হতে হবে বা পুরুষাঙ্গটি মলদ্বারে প্রবেশ করাতে হবে।

পেছন থেকেও নারীর গোপ’নাঙ্গে পু’রুষাঙ্গ প্রবেশ করানো যায় আর মূলত সেটাই হচ্ছে ডগি স্টাইল সহবাস(physical relation) । প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে “অ্যানাল সহবাস” সাধারণত নারীদের জন্য কষ্টদায়ক। প্রায় কোন নারীই এই ব্যাপারটি উপভোগ করেন না। এবং এতে ব্যথা পাবারও সমূহ সম্ভাবনা থাকে। কেবল পর্ণ ভিডিওতেই এই ব্যাপারটির আধিপত্য দেখা যায়।

আরো পড়ুন  ব্যথাদায়ক ব্ল্যাকহেডস দূর করার ঘরোয়া উপায়

ড’গি স্টা’ইল সহবাস (physical relation) কীভাবে করে?
বিষয়টি আহামরি কঠিন কিছু নয়। অনেক নারীই এটা বলে থাকেন যে ডগি স্টাইল সহবাস (physical relation) তাঁদের অরগাজম তাড়াতাড়ি আসে। এটা করার জন্য নারী আর আর পুরুষ মুখোমুখি অবস্থায় শারীরিক মিলন না করে নারীটি পেছন ফেরেন এবং পুরুষ পেছন থেকে গোপনাঙ্গে পুরুষাঙ্গ প্রবেশ করিয়ে থাকেন।

এক্ষেত্রে নারী হাঁটু ভাঁজ করে নিতম্ব উঁচু করে বসতে পারেন, এতে পুরুষটির পুরুষাঙ্গ প্রবেশ করাতে সুবিধা হয়।আবার নারী দাঁড়িয়ে থাকা অবস্থাতেও সামনে ঝুঁকে বা দেয়ালে ভর দিয়ে নিতম্ব উঁচু করে ধরতে পারেন, সেভাবেই ডগি স্টাইল করা সম্ভব। নিজেদের সুবিধা মত যে কোন পজিশনেই ডগি স্টাইল সহবাস করা সম্ভব।

ড’গি স্টা’ইল সহ’বাসে যে ব্যাপারগুলো মনে রাখবেন
-নারীর অনুমতি না নিয়ে পুরুষ অ্যানাল সহবাস(physical relation) করার চেষ্টা করবেন না বা মলদ্বারে প্রবেশের চেষ্টা করবেন না না। গোপ’নাঙ্গে পুরুষাঙ্গের প্রবেশ যতটা আনন্দময়, মলদ্বারে ততটাই কষ্টকর বেশিরভাগ নারীর ক্ষেত্রে। কেবল তখনই অ্যানাল সহবাস দিকেজান, যখন সঙ্গিনীও সেটি চায়।

আরো পড়ুন  বাচ্চার গায়ের রং ফর্সা করতে গর্ভাবস্থায় খান ৭ খাবার

–ডগি স্টাই’ল সহবাস নারীকে যেহেতু হাঁটু ও হাতের ওপরে ভর দিতে হয় অনেকটাই, তাই বিছানার ওপরে এটা করুন বা হাত-পায়ের নিচে পর্যাপ্ত সাপোর্ট দিন।-ডগি স্টাইল সহবাসের ক্ষেত্রে সোফা একটি চমৎকার উপাদান হতে পারে।-পুরুষেরা ডগি স্টাইল সহবাস (physical relation) ভালোবাসেন, শারীরিক মিলনের দৃশ্যটিও তাঁদের উত্তেজনা বাড়াতে সহায়ক হয়। অন্যদিকে নারীরাও এই বিষয়টি পছন্দ করেন। এভাবে নারীর অনেক গভীরে প্রবেশ করা সম্ভব হয় পুরুষের জন্য।-পুরুষেরা ডগি স্টাইল সহবাসের সময় বেশি চাপ প্রয়োগ করবেন না। জেনে ও বুঝে নিন সঙ্গিনীর কোন সমস্যা হচ্ছে কিনা। এই অবস্থানে পুরুষের পক্ষে সবচাইতে বেশি প্রেসার দেয়া সম্ভব হয়। তবে অনেক নারীর জন্য সেটা কষ্টেরও হতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *