লোম গজানোর উপায় কি?

আজকের এই পোস্টটি লোম গজানোর উপায় বিষয়ে। এমন অনেক যুবক আছেন, যাদের দাড়ি-গোঁফ তেমন ভাবে গজায় না। ফলে ইচ্ছে থাকলেও ট্রেন্ডি ফ্যাশনের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলা হয় না অনেকেরই।

লোম গজানোর উপায় কি?

লোম গজানোর উপায়

আজকাল অনেকেই দাড়ি রাখেন। কারণ, এটাই এখন হট ফ্যাশন! রণবীর সিং থেকে বিরাট কোহলি— সকলেই রাখছেন মুখভর্তি দাড়ি। আর দেখাদেখি এঁদের ভক্তকূলও দাড়ি রাখতে ব্যাকুল! কিন্তু ইচ্ছে থাকলেই তো আর সব সময় উপায় থাকে না! এমন অনেক যুবক আছেন, যাদের দাড়ি-গোঁফ তেমন ভাবে গজায় না। ফলে ইচ্ছে থাকলেও ট্রেন্ডি ফ্যাশনের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলা হয় না অনেকেরই। আজকাল বাজারে অবশ্য বেশ কিছু তেল বা লোশন পাওয়া যায়, যেগুলি মাখলে দ্রুত দাড়ি-গোঁফ গজায়, বাড়ে ঘনত্বও। কিন্তু সেগুলির দাম অনেক বেশি। তাছাড়া পার্শ্ব প্রতিক্রিয়ার আশঙ্কাও রয়েছে। তাহলে উপায়! এমন বেশ কয়েকটি উপায় আছে যেগুলি দ্রুত দাড়ি-গোঁফ গজাতে সাহায্য করে, বাড়ায় দাড়ির ঘনত্বও। আসুন জেনে নেওয়া যাক…

আরো পড়ুন  মুসলমানের কাফনের কাপড়ের রং সাদা কেন?

দ্রুত দাড়ি বা লোম গজানো বা বৃদ্ধির জন্য মেনে চলুন এই ৮টি কার্যকরী উপায়:

১) অনেকেরই এটা ধারণা যে, বার বার দাড়ি কাটলে দাড়ি বেশি ঘন হয়। কিন্তু এ ধারণার তেমন কোনও বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা নেই। দাড়ি বাড়াতে চাইলে তা অন্তত ৪ থেকে ৬ সপ্তাহ পর পর ছাঁটুন।

২) পেঁয়াজের রসে রয়েছে সালফার। পেঁয়াজের রস মুখে, দাড়ির গোড়ায় লাগাতে পারলে তা দাড়ি দ্রুত বাড়তে সাহায্য করে।

৩) ইউক্যালিপটাস সমৃদ্ধ ময়েশ্চারাইজার বা ক্রিম ব্যবহার করলে দাড়ি দ্রুত গজাবে। বাড়বে দাড়ির ঘনত্বও।

৪) মুখের ত্বক পরিষ্কার রাখুন। দিনে অন্তত ২-৩ বার করে উষ্ণ জলে মুখ ভাল করে ধুয়ে ফেলুন। এর ফলে নতুন দাড়ি গজাতে সুবিধে হবে।

আরো পড়ুন  যৌন’মিলনে গার্লফ্রেন্ড বা স্ত্রী প্রেগন্যান্ট হলে ৫ মিনিটে বাচ্চা নষ্ট করার ঔষধের নাম

৫) কোঁকড়ানো দাড়ি বিক্ষিপ্ত ভাবে থাকলে, সেগুলি কেটে ফেলুন। এগুলি দাড়ির সামগ্রিক বৃদ্ধিতে সমস্যা তৈরি করে।

৬) ভিটামিন বি কমপ্লেক্স দাড়ি দ্রুত বাড়তে এবং নতুন দাড়ি গজাতে সাহায্য করে। তাই চিকিত্সকের সঙ্গে পরামর্শ করে ভিটামিন বি কমপ্লেক্স খেতে পারেন।

ইউক্যালিপটাস ক্রিম দাম
ইউক্যালিপটাস ক্রিম দাম

৭) দিনে অন্তত ২ বার ১০ মিনিট করে মুখে হালকা ভাবে মালিশ করুন। এর ফলে মুখমণ্ডলে রক্ত-সঞ্চালন বৃদ্ধি পাবে যা দাড়ি দ্রুত বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।

৮) সপ্তাহে অন্তত এক বার মুখে স্ক্রাব করুন। এর ফলে মুখের মৃত কোষগুলি নির্মূল হবে, মুখমণ্ডলে রক্ত-সঞ্চালন বৃদ্ধি পাবে। ফলে নতুন দাড়ি গজাতে সুবিধে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *