বিউটি পার্লারের মত স্কিন পলিশ করার ঘরোয়া পদ্ধতি জেনে নিন

ত্বকের যত্ন(Skin care) সঠিক ভাবে নিলেই আপনি আপনার তারুণ্য ধরে রাখতে পারবেন। মৃত চামড়া ও তেল ত্বকের উপরিভাগে জমে স্তর সৃষ্টি করে। পলিশিং করার মাধ্যমে মৃত চামড়া ও তেলের এই স্তর দূর করা যায়। স্কিন পলিশ(Skin polish) করলে ত্বক নমনীয় ও দৃঢ় হয়। এই প্রক্রিয়াটির ফলে শরীরে অক্সিজেনের সরবরাহ বৃদ্ধি পায়, ফলে আপনার ত্বক উজ্জ্বল ও স্বাস্থ্যবান হয়। স্কিন পলিশ(Skin polish) করার জন্য আপনার কোন দামী বিউটি পার্লারে যাওয়ার প্রয়োজন নাই। ঘরেই কিছু প্রাকৃতিক উপাদান ব্যবহার করে আপনি স্কিন পলিশ(Skin polish) করে ফেলতে পারেন। স্কিন পলিশ করার পদ্ধতিগুলো জেনে নেয়া যাক তাহলে।

১। বেকিং সোডা –
ঘরে তৈরি স্কিন পলিশ (Skin polish) রেসিপির কথা যখন আসে তখন বেকিং সোডার কথা প্রথমেই বলতে হয়। বেকিং সোডার উপাদানগুলো শিরিষ কাগজের মতোই কাজ করে এবং মৃত চামড়া দূর করতে সাহায্য করে। এটি ব্ল্যাক হেডস দূর করতেও সাহায্য করে। বেকিং সোডা স্কিন পলিশের (Skin polish) জন্য যে উপাদান গুলো প্রয়োজন হবে তা হল – বেকিং সোডা, ফেস ওয়াশ ও বডি ওয়াশ। মুখে পলিশ করার জন্য বেকিং সোডা(Baking soda) ও আপনার পছন্দের ফেস ওয়াশ সমপরিমাণ নিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে ঘন পেস্ট তৈরি করুন। তারপর এই পেস্টটি আপনার মুখে লাগান এবং বৃত্তাকারে ও আস্তে আস্তে মুখে ম্যাসাজ করুন। কিছুক্ষণ পর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। তারপর গরম পানি দিয়ে গোসল করুন। এতে আপনার ত্বকের ছিদ্রগুলো উন্মুক্ত হবে। এখন একটি পাত্রে আপনার শরীরের জন্য যতটুকু প্রয়োজন ততটুকু বডি ওয়াশ নিয়ে এর সাথে কিছুটা বেকিং সোডা মিশিয়ে ঘন পেস্ট তৈরি করুন। এই মিশ্রণটি আপনার সারা শরীরে লাগান। কনুই, হাঁটু ও গোড়ালিতে ঝামা পাথর দিয়ে ঘষুন। খুব বেশি জোরে ঘষবেননা। এরপর পুরো শরীর ঠাণ্ডা পানি(Cold water) দিয়ে ধুতে ফেলুন এবং নরম ও পরিষ্কার তোয়ালে দিয়ে শরীর মুছে ফেলুন। তারপর একটি ভালো ময়েশ্চারাইজার লাগান। মাসে একবার এই প্রক্রিয়াটি অনুসরণ করলে আপনার ত্বক নরম, মসৃণ ও উজ্জ্বল দেখাবে।

আরো পড়ুন  দ্রুত ফর্সা হবার ক্রিম বানান ঘরে বসেই

২। চালের গুঁড়া –
বাসায় যদি চালের গুঁড়া(Rice powder) না থাকে তাহলে কিছু চাল গ্রাইন্ডার মেশিনে দিয়ে গুঁড়ো করে নিন। এমনভাবে গুঁড়ো করুন যাতে দানাদার পাউডারের মত হয়। একটি পাত্রে ১ চামচ চালের গুঁড়ার সাথে বেসন ও মধু মিশিয়ে নিন। যদি আপনার ত্বক তৈলাক্ত হয় ও মুখে ব্রণের দাগ থাকে তাহলে এই মিশ্রণটির সাথে লেবুর রস(Lemon juice) মিশিয়ে নিতে পারেন। মিশ্রণটি আপনার মুখে লাগিয়ে ৩-৫ মিনিট রাখুন। তারপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। তৈলাক্ত ত্বকের জন্য সপ্তাহে ২ দিন এই মিস্রিন্টি ব্যবহার করতে পারেন। আর যাদের ত্বক শুষ্ক তারা সপ্তাহে ১ দিন এটি ব্যবহার করে স্কিন পলিশ (Skin polish) করুন। চালের গুঁড়ার এই পলিশিং স্ক্রাবটি আপনার ত্বককে মসৃণ ও স্বাস্থ্যকরভাবে উজ্জ্বল করবে। এই পলিশিং স্ক্রাবটি আপনার সারা শরীরেও ব্যবহার করতে পারেন।

আরো পড়ুন  দারুণ ১৫টি কনসিলার ট্রিক্স জেনে নিন

৩। আপেল ও চিনি –
আপেল এক্সফলিয়েটের জন্য ভালো এবং চিনির দানা মৃত কোষ দূর করতে সাহায্য করে। আপেলে ভিটামিন(Vitamin) এ ও সি থাকে যা স্বাস্থ্যকর উজ্জ্বল ত্বকের জন্য প্রয়োজনীয়। ৪ টেবিলচামচ বাদামী চিনির সাথে ১ টেবিলচামচ দারুচিনি গুঁড়া ও ১ টেবিলচামচ আপেলের মজ্জা(আপেলের কয়েকটি টুকরো থেঁতলে নিন) এই সবগুলো উপাদান একসাথে ভালোভাবে মিশিয়ে ঘন পেস্ট তৈরি করে করুন। উষ্ণ গরম পানিতে গোসল করে সারা শরীরে এই মিশ্রণটি লাগান। কিছুক্ষণ পর পানি দিয়ে শরীর পরিষ্কার করে নিন। তারপর শরীর মুছে নিয়ে ময়েশ্চারাইজার লাগান।

গুরুত্বপূর্ণ টিপস :
– ভালো ফল পাওয়ার জন্য মাসে একবার স্কিন পলিশ (Skin polish) করুন।

– শরীরের কোন স্থানে খুব বেশি ঘষবেন না এতে স্ক্র্যাচ পড়তে পারে।

আরো পড়ুন  ত্বকের যত্নে ন্যাচারাল স্কিন টোনার

– বাথরুমে স্কিন পলিশ(Skin polish) করার সময় সতর্ক থাকুন যেনো পিছলে পড়ে না যান।

– আঘাতের স্থানে বা ক্ষত থাকলে স্ক্রাব না করাই ভালো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *