ঘাড়ের কালো দাগ দূর করার উপায় জেনে নিন

আমাদের অনেকেরই ঘাড়ে অবাঞ্ছিত কালো দাগ(Black spots) থাকে যা কেউ পছন্দ করেন না। আবার অনেক সময়ে লাগে বলে বিউটি পার্লারে গিয়েও এই দাগ দূর করে সম্ভব হয়না। এই দাগের জন্য পছন্দমতো পোশাক পরা যায়না। পছন্দমতো চুল বাঁধাও যায় না। খুব সুন্দর করে সাজার পরও মনের কোনে একটু খুঁতখুঁতে ভাব থেকেই যায়। ঝেড়ে ফেলুন মনের খুঁতখুঁতে ভাব। আর ঘরে বসেই দূর করুন ঘাড়ের কালো দাগ(Neck black spots)।

যেভাবে করবেন
. লেবুর রস, দুধ, মধু, ও অ্যালমন্ড অয়েল(Almond Oil) একসাথে মিশিয়ে ঘারে ভালোমতো ম্যাসাজ করুন। তারপর ২০ মিনিট রেখে গরম পানি দিয়ে ঘষে ঘষে দুয়ে ফেলুন। দাগতো চলে যাবেই, পাশাপাশি আপনার ঘাড়ের ত্বক হবে আরো উজ্জ্বল ও সুন্দর।

আরো পড়ুন  শরীরের ফেটে যাওয়া দাগ সারানোর ৫টি ঘরোয়া উপায় শিখুন

. গোসলের আগে ফ্রেশ লেবুর রস(Lemon juice) ও রোজ ওয়াটার এর সাথে মিশিয়ে কটন বল অথবা হাতে আঙ্গুলের সাহায্যে ঘষে ঘষে লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে গেলে ঘষে তুলে গোসল করে ফেলুন। সপ্তাহে অন্তত ৩ দিন এটা করুন। দাগ চলে যাবে।

. পরিমাণ মতো লেবুর রস, ব্লেন্ড করা টমেটো(Tomatoes), এই দুই উপাদান মিশিয়ে আপনার ঘাড়ের কালো দাগের উপর ম্যাসাজ করুন। ৩০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। পার্থক্যটা নিজেই বুজতে পারবেন।

. মধু, লেবুর রস, দই, শসা ও আলুর রস(Potato juice) সব উপাদান ১ চা চামচ করে নিন। সব একসাথে মিশিয়ে প্রথমে অল্প একটু নিয়ে আপনার ঘাড়ের কালো দাগের উপর লাগিয়ে কিছুক্ষণ ম্যাসাজ করুন। বাকিটা প্যাকের মতো লাগিয়ে রাখুন। ১৫-২০ মিনিট পর হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ২-৩ দিন এটা করতে পারলে স্থায়ী সমাধান পাওয়া যাবে।

আরো পড়ুন  ঘাড়ের কালো দাগ দূর করার ৪টি প্রাকৃতিক উপায়

. লেবুর রসের সাথে শুকনা হলুদ বাটা মিশিয়ে আপনার ঘাড়ের কালোদাগে ১\২ মিনিট ম্যাসাজ করুন। ১৫-২০ মিনিট রেখে হালকা গরম পানি(Hot water) দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

. কোনো কিছু ছাড়াই শুধু হলুদ বাটা যদি নিয়ম করে লাগান তাহলেও অনেক কাজে দিবে।

টিপস
. যখন বাহিরে যাবেন চেষ্টা করবেন ঘারে রোদ না লাগাতে।

. আপনার যদি তৈলাক্ত ত্বক(Oily skin) হয় তাহলে যখনই বাহিরে যাবেন ঘারে অয়েল কন্ট্রোল পাউডার ব্যাবহার করুন।

. কাঁচা হলুদ, শুকনা হলুদ, গুঁড়া হলুদ যেটাই পারেন সব সময় ব্যাবহার করুন।

. যখন বাহিরে যাবেন পাউডারের বদলে চন্দন গুঁড়া(Sandal powder) ব্যাবহার করুন।

. শুধু চন্দনের প্যাক সব সময় ব্যবহার করলেও অনেক বেশি উপকার পাওয়া যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *