সকালের ক্লান্তি দূর করুন সহজ ৬টি উপায়ে

সকালবেলা ঘুম থেকে যেন উঠতেই মন চায় না। আর কষ্ট করে উঠলেও ঘুমের রেশ থেকেই যায়। সতেজ ও ফুরফুরে ভাব থাকে না সারা দিনের কর্মব্যস্ততায়। শরীরে কেমন যেন ক্লান্তি(Fatigue) ভর করে থাকে। যার প্রভাব পড়ে কাজের ওপর, শরীরের ওপর। ঘুম থেকে উঠে মেনে চলুন কিছু নিয়ম, যা সারা দিনের ক্লান্তিকে দূর করার পাশাপাশি শরীরকে রাখবে সুস্থ ও সতেজ। বোল্ডস্কাই ওয়েবসাইটে ক্লান্তি(Fatigue) দূর করার কিছু পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। চলুন, একনজরে জেনে নিন সারা দিন ক্লান্তিহীন থাকতে কী করবেন :সকালের ক্লান্তি

সকালের ক্লান্তি দূর করার উপায়

১. রাতে ভালো করে ঘুমান
ঘুম কম হওয়া ক্লান্তির একটি প্রধান কারণ। চেষ্টা করুন প্রতিদিন একই সময়ে ঘুমাতে যাওয়ার এবং একই সময়ে ঘুম থেকে ওঠার। আপনার শরীর ঘুমের এই রুটিনে অভ্যস্ত হয়ে যাবে এবং আপনাকে সারা দিন সতেজ রাখবে।

আরো পড়ুন  ডিম কেন খাবেন, জানালেন ডাক্তার

২. গোসল করা
নিয়মিত সকালে ঠান্ডা পানি(Cold water) দিয়ে গোসল করলে আপনি শরীরে আলাদা শক্তি পাবেন, যা সারা দিন আপনাকে ক্লান্ত করবে না। ঠান্ডা পানি শরীরের রক্ত সঞ্চালন ভালো রাখে এবং ক্লান্তি দূর করে খুব সহজেই।

শারীরিক ক্লান্তি দূর করার উপায়

৩. হালকা ব্যায়াম করা
ঘুম থেকে ওঠার পর প্রতিদিন যন্ত্র ছাড়া হালকা ব্যায়াম(Exercise) করুন। চাইলে আধা ঘণ্টার জন্য হেঁটে আসতে পারেন। এতে শরীর ফুরফুরে থাকবে এবং নতুন করে শক্তি অনুভব করবেন; যা ক্লান্তি দূর করার প্রধান উপায়।

৪. চা অথবা কফি খাওয়া
প্রতিদিন সকালটা শুরু হোক এক কাপ চা অথবা এক কাপ কফি(Coffee) দিয়ে। চায়ের পাতায় অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট থাকে, যা শরীরের শক্তি ধরে রাখে এবং ক্লান্ত করে না। আর কফিতে রয়েছে ক্যাফেইন, যা আপনার শরীরের শক্তিকে দ্বিগুণ বাড়িয়ে দেয়। তাই সকালে চা বা কফি খাওয়ার অভ্যাস করুন।

আরো পড়ুন  নারীদের সাথে মিলনকালে পুরুষরা অবশ্যই যে কাজগুলো করবেন

ক্লান্তি দূর করার টিপস

৫. ফলের রস
সকালে এক গ্লাস ফলের রস(Fruit juice) এক নিমিষেই শরীরের ক্লান্তি দূর করতে সাহায্য করে। মৌসুমি যেকোনো ফলের রস খেতে পারেন। এ ছাড়া লেবুর শরবতও খেতে পারেন। লেবুর রসে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি এবং সাইট্রিক এসিড রয়েছে, যা শরীরের ক্লান্তি দূর করতে বেশ কার্যকর।

৬. সঠিক পরিমাণে নাশতা খাওয়া
সকালের স্বাস্থ্যকর নাশতা সারা দিন আপনাকে সুস্থ রাখবে। সবজি(Vegetable) এবং ফলের জুস আপনার শরীরে শক্তি জোগাবে। প্রতিদিন সকালে সঠিক পরিমাণে খাবার খেলে শরীর, মন দুটোই সুস্থ থাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.