রূপচর্চায় মধু ও লেবুর ১০টি কার্যকরী ব্যবহার জেনে নিন

লেবু আর মধু খাওয়া যে শুধু স্বাস্থ্যের জন্য উপকারি তা নয়, এই দুটি উপাদানের ব্যবহার ত্বক(Skin) ও চুলের জন্য অনেক কার্যকরী। মধু এবং লেবু তাদের গুনকারী বৈশিষ্ট্য জন্য পরিচিত। এই দুটি উপাদানকে বিভিন্ন সময়ে সৌন্দর্য ও স্বাস্থ্য চিকিত্সার জন্য ব্যবহার করে আসা হচ্ছে। আমরা অনেকেই ডেইলি রূপচর্চায় জন্য লেবু(Lemon) ও মধুকে অনেক বেশি গুরুত্ব দেই। কেনই বা না, এই দুটি উপাদান তো জাদুর মতো কাজ করে। আজকের পোস্টে মধু(Honey) ও লেবুর এক সঙ্গে ১০ টি ব্যবহার আমি সেয়ার করবো।

১। ডিটক্স এবং ওজন কমানোর:
এর আগের পোস্টে আমি ওজন(Weight) কমানোর কিছু টিপস সেয়ার করেছিলাম, তাতে লেবুর ব্যবহার কি করে করবেন তার উল্লেখ ছিল। অনেকেই ওজন কমানোর জন্য সকালবেলা, সবার আগে গরম জলের সঙ্গে লেবু ও মধু(Honey) মিশিয়ে পান করে থাকেন (তবে রাখবেন মধু যেন খাঁটি হয়)। এই পদ্ধতি শরীরের বাড়তি মেদ ঝরাতে সাহায্য করে।

২। ত্বকের দাগ দূর করে:
ত্বকের কালো দাগ, বিশেষ করে রোদে পোড়া দাগ, ব্রণের দাগ(Acne scars) দূর করতে মধু ও লেবুর তুলনাই হয় না। লেবুতে রয়েছে প্রাকৃতিক ব্লিচিং উপাদান, যা ত্বকের কালো দাগ হালকা করে, অন্য দিকে মধু(Honey) ত্বকে ময়শ্চারাইজিং করতে সাহায্য করে। রোদে পোড়া দাগ দূর করতে সপ্তাহে দুদিন লেবু ও মধুর মিশ্রন লাগান। ত্বক শুষ্ক হলে এতে অলিভ তেল মিশিয়ে নিতে পারেন।

আরো পড়ুন  ব্রণের গর্ত, র‍্যাশ, পোরস, লালচে ভাব দূর করার উপায়

৩। ব্রণ এবং ফুস্কুড়ি চিকিত্সা:
লেবু ও মধুর মিশ্রনে ব্যাকটেরিয়া বিরোধী বৈশিষ্ট্যের উপস্থিতি রয়েছে। নিয়মিত এই মিশ্রনের ব্যবহার ব্রণ(Acne) দূর করে এবং ত্বককে ব্রণ মুক্ত রাখতে সাহায্য করে।

৪। ব্ল্যাকহেডস অপসারণ করে:
লেবু পাতলা করে কেটে, তাতে সামান্য মধু দিয়ে কাটা লেবুর অংশ ত্বকে সার্কুলার মোশনে ঘষুন। এটি ব্ল্যাকহেডস(Blackheads) অপসারণ করতে সাহায্য করে।

৫। ত্বকের তৈলাক্ত ভাব দূর করে:
অনেকেরই ত্বক খুব তৈলাক্ত হয়ে থাকে। কিছুক্ষণ পর পরই ত্বক তেলতেলে হয়ে যায় ও দেখতে কালো লাগে। তাই ত্বকের তেল তেলে ভাব কমাতে ছোট একটি তুলার বলের সাহায্যে মধু ও লেবুর রস ত্বকের(Skin) তৈলাক্ত অংশে ঘষুন। ১০ মিনিট রেখে মুখ ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে দুবার এই পদ্ধতিটি ফলো করুন।

আরো পড়ুন  ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে ১০টি ঘরোয়া ফেস মাস্ক

৬। খুশকি কমাতে সাহায্য করে:
যাদের মাথার ত্বক খুব শুষ্ক ও খুব খুশকি(Dandruff) হয়, তারা লেবু ও মধু সাথে নারিকেল তেল, ও অলিভ ওয়েল মিশিয়ে চুলের গোঁড়ায় গোঁড়ায় মাসাজ করুন। ২০ মিনিট পরে হালকা কুসুম জলে চুল(Hair) ধুয়ে শ্যাম্পু করে ফেলুন।

৭। চুলের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে:
যদি আপনি ঘরে বসেই সাইনি, সিল্কি চুল চাইছেন তাহলে অবশ্যই এই মাস্কটি সপ্তাহে ২ বার ব্যবহার করুন। এটা গোটা লেবুর রসে সঙ্গে ২ চামচ মধু, চার চামচ ঘরে পাতা দই, এবং ২ চামচ নারকেল তেল(Coconut oil) বা অলিভ তেল। ৩০ মিনিটের মতো চুলে লাগিয়ে রাখুন এবং শ্যাম্পু করে নিন।

৮। বডি স্ক্রাবার:
একটি বাটি মধ্যে সামান্য বেসন, sea সল্ট, চিনি, জলপাই তেল, মধু ও লেবুর রস(Lemon juice) যোগ করুন। উপাদানগুলি ভাল করে মিশিয়ে স্নানের আগে এটি দিয়ে বডি স্ক্রাবিং করুন। এতে আপনার শরীরের মৃত কোষ দূর হবে এবং ত্বক হবে নরম, মসৃণ।

আরো পড়ুন  ত্বকের যত্নে রসুনের ৪টি ব্যবহার জেনে রাখুন

৯। ঠোঁটের মরা কোষ পরিষ্কার করে:
লেবুর রস ও মধুর সঙ্গে চিনি, অলিভ তেল(Olive oil) মিশিয়ে নিয়মিত ঠোঁট মাসাজ করুন এতে মরা কোষ ঝড়ে যাবে ও ঠোঁট সুন্দর থাকবে। মধু, কয়েক ফোঁটা লেবুর রস(Lemon juice) এবং চিনি যে কোন রকমের এক্সফলিয়েটিং কাজ খুব ভালো করে। ত্বকের দাগ এবং ত্বকে নরম ও স্বাস্থ্যোজ্জ্বল করে তোলতে এই উপাদানগুলি সহজেই ব্যবহার করতে পারেন।

শেষে আরেকটি টিপস সেয়ার করবো যা আসছে শীতে আপনাদের খুব কাজে আসবে। শীতের রুক্ষতা কাটিয়ে তুলতে প্রতিদিন স্নানের আগে গ্লিসারিন,লেবু, মধু ও অলিভ তেল(Olive oil) এক সঙ্গে মিশিয়ে বডি মাসাজ করুন, বিশেষ করে, কনুই, হাঁটু। ২০ থেকে ৩০ মিনিট পরে উষ্ণ জলে স্নান সেরে নিন। এই প্রক্রিয়াটি গোটা শীতে আপনার ত্বককে hydrate তো রাখবেই, পাশাপাশি ত্বকে আনবে বাড়তি উজ্জ্বলতা। শীতকালে আর রুক্ষ শুষ্ক ত্বকে সমস্যা থাকবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *