রাতে মাত্র ১০ মিনিটের যত্নে চিরকাল সুন্দর থাকুন

সুস্থ সুন্দর ত্বক(Skin) আমাদের একজন মানুষের আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে তোলে।কোন সময়টাতে ত্বকের যত্ন (skin care) নিলে আমরা সব চাইতে ভালো ফলাফল পেতে পারি তা অনেকিই জানি না। স্কিন বিশেষজ্ঞদের মতে আমাদের ত্বকের ওপর সব চাইতে ভালো প্রভাব ফেলে রাতের বেলার যত্নে।রাতে আমরা ত্বকের যত্ন নিলে তা সারারাত আমাদের ত্বকের ওপর কাজ করতে থাকে। এতে করে আশানুরূপ উজ্জ্বল ত্বক(Skin) পাওয়া সম্ভব।

কিন্তু রাতের বেলা অনেকেই ত্বকের যত্ন আলসেমির কারণে নিতে চান না। এরকম ভুল না করাই ভালো। মাত্র ১০ টি মিনিট সময় বের করে নিয়ে ত্বকের একটু যত্ন নিন। দেখবেন খুব সহজে ত্বকের নানা সমস্যা থেকে চিরকালের জন্য মুক্তি পেয়ে গেছেন।

মাত্র ১ মিনিটে স্ক্রাব করুন (Scrub in just 1 minute)
কেমিক্যালের স্ক্রাব(Scrub) প্রতিদিন ব্যবহার করা উচিৎ নয়। তাই ঘরে সামান্য চালের গুঁড়ো এবং দুধ মিশিয়ে তৈরি করে নিন প্রাকৃতিক স্ক্রাবার। এটি দিয়ে মাত্র ১ মিনিট ত্বক স্ক্রাব করে ত্বক ধুয়ে ফেলুন। অনেক উপকার পাবেন।

আরো পড়ুন  ঘরে বসেই পার্লারের রঙ ফর্সাকারী হোয়াইটনিং ফেসিয়াল করে ফেলুন

ফেসিয়াল মাস্ক ৫-৭ মিনিটেই (The facial mask is 5-7 minutes)
এক চা চামচ মধু(Honey), অর্ধেক পাকা কলা পিষে এবং একটু দুধ মিশিয়ে মাস্ক তৈরি করে মুখে লাগান ম্যাসেজ করে। ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে ম্যাসেজ করে নিন। এতে ত্বকের নিচে রক্ত সঞ্চালন(Blood circulation) ভালো হবে। ফলে ত্বকের নানা সমস্যা দূর হবে। মাত্র ৫-৭ মিনিট মুখে রেখে দিন। এরপর তা আলতো ঘষে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন ভালো করে। মুছে নিন ত্বক মাস্কটি ভালো করে ধুয়ে নেবেন ত্বক থেকে। যেন একটুও রয়ে না যায় ত্বকে। এরপর একটি পাতলা সুতি তোয়ালে দিয়ে মুখ চেপে চেপে মুছে ফেলুন। ঘষে মুছবেন না। এতে ত্বকের ক্ষতি(Skin damage) হয়। এভাবে সারারাত থাকুন। কারণ মধু ব্যবহার পর কোনো ধরণের প্রসাধনী ব্যবহার করার প্রয়োজন হয় না।

আরো পড়ুন  ত্বকের যত্নে ন্যাচারাল স্কিন টোনার

ব্যস, মাত্র ১০ মিনিটে হয়ে গেলো রাতের বেলার ত্বকের যত্ন(Skin care)। নিয়মিত এই রুটিন মেনে চললে ত্বকের নানা সমস্যা থেকে চিরকালের জন্য মুক্তি পাবেন।

আমাদের পোষ্টগুরো আপনার বিন্দু মাত্র উপকারে আসলে শেয়ার করবেন প্লিজ। আপনাদের কোন অভিযোগ বা প্রশ্ন থাকলে কমেন্টে করতে পারেন। ধণ্যবাদ প্রিয় হেলথ.কম এর পক্ষ থেকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *