মিলনের সময় যে কথায় তৃপ্তি বাড়ায় আরো দিগুণ

কথায় বলে- পুরুষ মানুষ দুই প্রকার। জীবিত আর বিবাহিত। সত্যিই কি বিয়ের পর পুরুষের সুখ চলে যায়? তাঁদের মন বিষিয়ে ওঠে? কিন্তু উপায় কী। হ্যাঁ, বিশেষজ্ঞরা বের করেছেন, বিবাহিত কিংবা দাম্পত্য জীবনে কীভাবে সুখে থাকা যায় তার রহস্য। বিশেষ করে মিলনে (physical relation) তৃপ্তি পাওয়ার উপায়।

যৌনসম্পর্ক ভালো হওয়ার জন্য কত লোকই কত কিছুই না করে। কত জন কাড়ি কাড়ি টাকা খরচ করছে। কিন্তু সমীক্ষা বলছে, এত কিছুর কোনো প্রয়োজন নেই। পার্টনারকে মিলনে সন্তুষ্টি দিতে চান? তাহলে মিলনের (physical relation)একটু আগে তাঁকে আই লাভ ইউ (আমি তোমাকে ভালোবাসি) বলুন। ব্যাস, এতেই বাজিমাত!

আমেরিকার চ্যাপমান ইউনিভার্সিটি একটি সমীক্ষা চালিয়েছিল মিলনের (physical relation)ব্যাপারে সন্তুষ্টির বিষয়ে। সেই সমীক্ষার পর যা উঠে এসেছে তা হলো, ৭৫ শতাংশ নারী বলেছেন, মিলনের সময় তাঁরা আই লাভ ইউ বাক্যটি তাঁদের পার্টনারের কাছ থেকে শুনতে পেলেই, তাঁদের তৃপ্তি ভালো হয়।

তাহলে আর দেরী কেন? মিলনের(physical relation) সময় আর যাই করুন, সেই বহুবার বলা কথাটাই সঙ্গীর কানের কাছে মুখ নিয়ে গিয়ে বলুন, আই লাভ ইউ। ব্যস, যৌন তৃপ্তিতে কোনো খাদ থাকবে না। আর হিনমন্যতায় না ভুগলে সম্ভব হলে তার রূপের একটুখানি প্রশংসা করুন। এছাড়াও তৃপ্তির বিষয়ে গবেষণায় আরও দেখা গেছে, মোজা পরে সঙ্গম করলে চরম সুখ প্রাপ্তি হয়।

আরো পড়ুন  যেভাবে ঘুমালে মৃত সন্তান জন্ম দিতে পারেন আপনিও সতর্ক হতে বিস্তারিত পড়ুন

বিজ্ঞানীদের মতে, পায়ে মোজা পরা থাকলে যৌন সুখ কয়েক গুণ বেড়ে যায়। তবে উত্‍কট রহের মোজা পরলে হিতে বিপরীত হতে পারে বলে সতর্ক করা হয়েছে।

হাসিখুশি পুরুষের প্রতি আদৌ কোনো যৌন আকর্ষণ বোধ করে না নারী। বরং গোমড়া মুখের সঙ্গীর প্রতি দৈহিক মিলনে(physical relation)র তীব্র কামনা অনুভব করে নারী।

অন্যদিকে, নারীর হাসিমুখ দেখে পুরুষের যৌন ইচ্ছা বৃদ্ধি পায় বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। সুতরাং কাতুকুতু দিলেও কোনো মতে পুরুষের হাসি চেপে রাখাই বিধেয়।

রৌদ্রস্নানে টেস্টোস্টেরন বৃদ্ধি পায়। এর ফলে স্ত্রী পুরুষ উভয়েরই মনে তীব্র মিলনের কামনা জাগে। মিলনের(physical relation) আগ্রহ বাড়িয়ে তুলতে রোদ পোহানো অভ্যেস করতে পারেন।

পূর্বরাগ পর্যায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে পুরুষের নাক। নাকের সামনের নরম অংশের স্পর্শে নারীর যৌন চেতনা জেগে ওঠে। তীব্র কামোন্মাদনা তৈরি হয়।

আরো পড়ুন  শরীরকে বিষমুক্ত রাখতে চান? নিচের পদ্ধতি অনুসরণ করুন

ঘর্মাক্ত পুরুষ দেখলে অধিকাংশ নারীর প্রবল যৌন ইচ্ছা তৈরি হয় বলে এক সমীক্ষায় বলা হয়েছে। আসলে পুরুষের ঘামের সঙ্গে অ্যান্ড্রোস্ট্যাডিএনোন ক্ষরণের ফলে জাগ্রত হয় নারীর যৌন চেতনা।

একটি ভুল ধারণা প্রচলিত আছে তা হলো, পেশিবহুল পুরুষ মাত্রই নারীকে চরম যৌন তৃপ্তি দিতে সক্ষম। কিন্তু বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, যে সমস্ত পুরুষের শরীরের মধ্যপ্রদেশ স্ফীত, তাঁরাই দীর্ঘ সম্ভোগ করতে পারেন। আসলে শরীরে চর্বি থাকার মানে হলো স্ত্রী হরমোন এস্ট্র্যাডিওল-এর আধিক্য। এই হরমোনের সাহায্যে চরম রতিসুখের স্তরে পৌঁছাতে সাধারণের তুলনায় অন্তত ৫ মিনিট বেশি সময় লাগে ভুঁড়ি সমৃদ্ধ পুরুষের। তাই সিক্স প্যাক্স-এর মোহ ত্যাগ করে নারীরা স্থূল শয্যাসঙ্গী বাছলেই অধিক যৌন তৃপ্তি লাভ করবেন।

যত্ন করে দাড়ি কামানো মুখের চেয়ে গালে খোঁচা খোঁচা দাড়িই নারীকে বেশি আকর্ষণ করে বলে গবেষণায় জানা গেছে। এলোমেলো চুল আর অগোছাল দাড়ির পুরুষের সঙ্গে যৌন মিলনে (physical relation)তৃপ্ত হন বেশির ভাগ নারী।

অন্তরঙ্গতা বাড়াতে চুমুর (kiss) বিকল্প নেই, জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। যে যুগল ঘন ঘন চুম্বনে অভ্যস্ত, দেখা গেছে দীর্ঘায়িত যৌন মিলনের(physical relation)  আনন্দ তাঁরাই উপভোগ করেন।

আরো পড়ুন  জেনে নিন সর্বোচ্চ ভিটামিন ই সমৃদ্ধ ১০টি খাবারের নাম

মশলাদার খাবার পুরুষের যৌন ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে বলে কথিত আছে। পছন্দের পুরুষের থেকে সম্পূর্ণ দৈহিক সুখ লাভ করতে হলে তাঁকে মশলা মিশ্রিত সুস্বাদু পদ পরিবেশন করুন।

মাথা ধরার অব্যর্থ দাওয়াই হলো রতিসুখ, জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। তাঁদের মতে, যৌন তৃপ্তি অনেক সময় আংশিক অথবা পুরোপুরি মাইগ্রেন সারাতে সক্ষম।

বিজ্ঞানীদের মতে, বয়স্কা নারীরা অল্পবয়েসীদের চেয়ে তুলনায় দ্রুত যৌন সুখের চরম সীমায় পৌঁছান। এই কারণে বয়সে বড় নারীর সঙ্গে পুরুষের সঙ্গম বেশি তৃপ্তিদায়ক বলে মনে করেন তাঁরা।

জানেন কি, ঘুমিয়ে ঘুমিয়েও বহু মানুষ রতিক্রিয়াশীল থাকতে পারেন? ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে খাওয়া অথবা হেঁটে-চলে বেড়ানোর অভ্যাসের মতো কেউ কেউ ঘুমন্ত অবস্থায় দিব্যি যৌন মিলনে (physical relation)লিপ্ত হতে পারেন। এই অসুখের নাম ‘সেক্সমনিয়া’। মজার কথা, ঘুম ভাঙলে ঘটনাটি একেবারেই ভুলে যান তাঁরা।

তবে যতই টিপস নিন না কেন, কার্যক্ষেত্রে সঠিক দাওয়াইটি মনে করে প্রয়োগ করতে পারলেই অভীষ্ট সিদ্ধি হবে। মনে রাখবেন, যৌন সংক্রান্ত কোনো রোগ থাকলে আগে তার ট্রিটমেন্ট করাই বিধেয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *