ত্বকের যত্নে অ্যালোভেরা

ত্বকের যত্নে অ্যালোভেরা

অ্যালোভেরা বা ঘৃতকুমারী। গ্রামগঞ্জে অ্যালোভেরার তেমন কোনো গুরুত্ব না থাকলেও, স্বাস্থ্য ও ত্বকের(Skin) যত্নে এই ভেষজ উদ্ভিদটি ভীষণ উপকারী। অ্যালোভেরায় রয়েছে অ্যান্টিব্যাক্টেরিয়াল উপাদান। যা খাওয়া যেমন স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী, ঠিক তেমনি ত্বকের যত্নেও সমানভাবে কার্যকর। ত্বকের জেল্লা বৃদ্ধি করে, ত্বক সতেজ রাখে। তারুণ্য ধরে রাখতেও খুব উপকারি।

ময়েশ্চারাইজার
শুষ্ক অ্যালোভেরা(Aloe Vera) বেশ উপকারী ভূমিকা পালন করে। পুষ্টি প্রদানের মাধ্যমে ত্বকের আর্দ্রতা বজায় রেখে কোমল রাখতে সাহায্য করে অ্যালোভেরা। তাছাড়া অন্যান্য তেল সমৃদ্ধ ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করলে ত্বক তেলতেলে হয়ে যাওয়ার সমস্যা থাকে। অ্যালোভেরা ব্যবহার করলে হয় না। ময়েশ্চারাইজারের পাশাপাশি অ্যালোভেরা মেকআপের আগে প্রাইমার হিসেবেও ব্যবহার করা যায়। ত্বকের(Skin) দাগ দূর করে লাবন্য বৃদ্ধিতে সহায়ক।

অ্যালোভেরা দ্বারা বিভিন্ন ধরনের প্যাক তৈরি করা যায়, যা ত্বকের জন্য দারুণ কার্যকরী। এছাড়া এটি তৈলাক্ত, শুষ্ক বা মিশ্র সব ধরনের ত্বকে ব্যবহার করা যায়। যাদের অ্যালোভেরায় এলা্র্জি আছে, এটি ব্যবহারে ত্বকে জ্বালাপুড়া বা চুলকানি হয় তারা এটা এড়িয়ে যেতে পারেন। এটি দ্বারা তৈরি কয়েকটি প্যাক এর নিয়ম লেখা হল এবং এর বিভিন্ন কার্যকরী দিকগুলো তুলে ধরা হলো।

অ্যালোভেরা জেল, এক চিমটি হলুদের গুঁড়ো এবং মধু(Honey) একসাথে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এই প্যাকটি ত্বকে লাগিয়ে রাখুন। ২০ মিনিট পর শুকিয়ে গেলে কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটি সপ্তাহে একবার ব্যবহার করুন। এটি ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করবে।

আরো পড়ুন  শীতকালে রাতে মাত্র ২ মিনিটে চেহারা বাচ্চাদের মতো মসৃণ ফর্সা করার উপায়

অ্যালোভেরা জেল এবং গোলাপ জল একসাথে মিশিয়ে নিন। এই প্যাকটি মুখ এবং ঘাড়ে ব্যবহার করুন।

অ্যালোভেরা জেল এবং কয়েক ফোঁটা লেবুর রস(Lemon juice) একসাথে মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। এটি মুখ এবং ঘাড়ে ব্যবহার করে নিন। ১৫ মিনিট পর শুকিয়ে গেলে কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাক রোদেপোড়া ভাব দূর করতে সাহায্য করে।

মেইকআপ রিমুভার
মেকআপ করার থেকে তা ভালোভাবে পরিষ্কার করে নেয়া বেশি গুরুত্বপূর্ণ। আর রাসায়নিক উপাদানসমৃদ্ধ মেকআপ রিমুভারের তুলনায় অ্যালোভেরা কার্যকর ও উপকারী। বিশেষত চোখের মেকআপ(Makeup) যেমন কাজল, মাসকারা এবং শ্যাডো তুলে ফেলতে রাসায়নিক মেকআাপ রিমুভারের তুলনায় অ্যালোভেরা বেশি উপযোগী। এতে চোখের কোনো ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে না।

ঘরোয়া স্ক্রাব
ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রেখে মৃতকোষ দূর করতে স্ক্রাব তৈরিতে অ্যালোভেরা ব্যবহার করা যায়। অ্যালোভেরার সঙ্গে চিনি বা কফি মিশিয়ে এক্সফলিয়েটর তৈরি করে নেয়া যায়।

ভ্রু’র জেল
চোখের ভ্রু সেট করতে বিভিন্ন জেল পাওয়া যায়। হাতের কাছে এমন জেল না থাকলে বিকল্প হিসেবে ব্যবহার করা যেতে পারে অ্যালোভেরা(Aloe Vera)। পরিষ্কার মাসকারার তুলি অ্যালোভেরা জেলে ডুবিয়ে তা ভ্রুতে বুলিয়ে নিন। এই ভ্রু একই রকম রাখতে সাহায্য করবে দীর্ঘক্ষণ।

আরো পড়ুন  ত্বকের সুস্থতায় পাকা পেঁপের ফেসপ্যাক

পায়ের যত্নে
পায়ের রুক্ষ ত্বক বা পা ফাটার সমস্যায় অ্যালোভেরা দারুণ উপযোগী। পায়ে গাঢ় করে অ্যালোভেরা জেল ও সমপরিমান গ্লিসারিন লাগিয়ে শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। ঘুমানোর আগে মোজা পরে নিন এতে পা কোমল থাকবে।

রোদে পোড়া ত্বকের যত্ন
অ্যালোভেরা জেলে রয়েছে ত্বক(Skin) সুস্থ রাখার উপাদান। তাই এটি রোদে পোড়া ত্বক সুস্থ করে তুলতে সাহায্য করে। এছাড়া ত্বকের লালচে ভাব, জ্বালা ভাব বা অন্যান্য সমস্য দূর করতেও এই জেল সহায়ক। আক্রান্ত ত্বকে ভারী করে জেল লাগিয়ে অপেক্ষা করুন। ক্ষতিগ্রস্ত ত্বক শীতল করতে সাহায্য করবে অ্যালোভেরা। এছাড়াও ১ চামচ লেবুর রস(Lemon juice), ১ চামচ চিনি, ১ চামচ অ্যালোভেরা জেল এর মিশ্রন রোদে পোড়া দাগ তুলতে খুবই কার্যকরী।

দাগ হালকা করতে সহায়ক
অ্যালোভেরা জেল ত্বকের দাগ ছোপ, ব্রণের দাগ(Acne scars), রোদপোড়া দাগ হালকা করতে সহায়ক। প্রতিরাতে অ্যালোভেরা জেল ব্যবহারে দাগ হালকা হয়। এছাড়া চোখের নিচের কালি দূর করতেও এই জেল সহায়ক। ত্বকের যত্নে অ্যালোভেরা ব্যবহার করে উপকার পাওয়া যায়। এর কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই, আর তাই যে কেউ এটি ব্যবহার করতে পারবে।

আরো পড়ুন  জেনে নিন ত্বকের সৌন্দর্য নষ্টের ৯টি কারণ

নাইট ক্রিম হিসেবে
অ্যালোভেরা নাইট ক্রিম হিসেবে খুবই কার্যকরি। তাজা অ্যালোভেরা বা বাজারে কিনতে পাওয়া অ্যালোভেরা জেল(aloe vera gel) প্রতিদিন রাতে নাইট ক্রিম হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। এতে ত্বকের উজ্জলতা খুব বেশি পরিমানে বেড়ে যায় এবং ত্বকে জেল্লা আসে। ত্বক দাগন হয়।

ঠোঁটের যত্নে
ঠোঁট এর রঙ উজ্জ্বল রাখতে ঠোঁট নরম আর মসৃণ করতে অ্যালোভেরা ব্যবহার করা যায়৷ নিয়মিত অ্যালোভেরা জেল ঠোঁটে লাগলেই ঠোঁট উজ্জ্বল হবে। এক টেবিল চামচ চালের গুঁড়ো আর এলোভেরা জেল(aloe vera gel) মিশিয়ে আস্তে আস্তে এই মিশ্রণ ঠোঁটে লাগিয়ে পাঁচ মিনিট পর ঠাণ্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

এন্টিএজিং হিসেবে
অ্যালোভেরায় এন্টি অক্সিডেন্ট উপাদান থাকায় এটি ত্বক টানটান রাখতে সাহায্য করে, তারুণ্য ধরে রাখে। ত্বকে ভাজ সহজে দূর করে। ত্বক নরম ও মোলায়েম হয়। এর জেল ত্বকের গভীরে প্রবেশ করে এবং ভিটামিন এ, বি, সি থাকায় ত্বকে পুষ্টি জোগায়। ১ চামচ মধু(Honey), ১ চামচ ডিমের সাদা অংশ ও ১ চামচ অ্যালোভেরা জেল এর মিশ্রন ১৫ মিনিট মুখে লাগিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এই মিশ্রন এন্টিএজিং এ খুব কার্যকরি।

নিয়মিত অ্যালোভরা ব্যবহারে ত্বক হয় লাবণ্যময়, মসৃণ, কোমল ও সুন্দর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *