কনুই, হাঁটু ও গোড়ালির বিশেষ যত্ন

পরিপূর্ণ সৌন্দর্য পেতে কনুই, হাঁটু ও গোড়ালির বিশেষ যত্ন

মুখের যত্ন নিয়ে, মুখের সৌন্দর্য নিয়ে চিন্তিত থাকেন সবাই। অথচ শরীরের অন্য অঙ্গ গুলোর দিকে যেন মনযোগই থাকে না। এমন হলে কি হবে? কুচকুচে কালো কনুই (Elbow) কিংবা ফাটা গোড়ালি এক মুহূর্তে ম্লান করে দিতে পারে আপনার সকল সৌন্দর্য। আসুন, আজ জানি শরীরের এইসব অবহেলিত অঙ্গগুলোর একটু বিশেষ যত্ন সম্পর্কে।

কনুই ও হাঁটু
শরীরের অন্যান্য অংশের তুলনায় কনুই ও হাঁটুর মতো ভাঁজের অংশের ত্বক প্রায়ই শুষ্ক , খসখসে ও কাল হয়ে যায় । তাই কনুই ও হাঁটুর দরকার বিশেষ যত্ন ।

– নিয়মিত স্ক্রাব দিয়ে হাঁটু ও কনুই পরিষ্কার করুন ।
– অলিভ অয়েল বা আমন্ড অয়েল(Amand Oil) দিয়ে কনুই ও হাঁটুতে ম্যাসাজ করুন ।
– লেবুর রস হাঁটু ও কনুইর ত্বক(Skin) ভাল রাখার জন্য দারুন উপকারি । লেবুর রসে সামান্য লবন মিশিয়ে হাঁটু ও কনুইতে ঘষুন । উপকার পাবেন ।
– নিয়মিত ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবার খান।

আরো পড়ুন  ত্বকের বলিরেখা দূর করতে ৫টি সহজ উপায় জেনে নিন

পায়ের গোড়ালি
সুন্দর ও মসৃণ পায়ের গোড়ালি সবার নজর কাড়ে । কিন্তু শীতকালে ও ধুলোয় পায়ের গোড়ালি ফেটে যায় । তাই শীতকালে পায়ের গোড়ালির দরকার বিশেষ যত্ন । অন্যান্য ঋতুতেও যত্ন চালিয়ে যেতে হবে।

– হালকা গরম পানিতে লিকুইড সাবান(Soap) মিশিয়ে তার ভেতর পা কিছু সময় পা ডুবিয়ে রাখুন । তারপর ফুট স্ক্রাবার দিয়ে পায়ের গোড়ালি ভাল মতো ঘষে নিন ।
– নিয়মিত গ্লিসারিন ও গোলাপ জলের মিশ্রণ পায়ের গোড়ালিতে লাগান , গোড়ালি মসৃণ থাকবে ।
– রাতে ঘুমাতে যাবার আগে পায়ের গোড়ালিতে ভ্যাসিলিন(Vaseline) লাগিয়ে কিছু সময় ম্যাসাজ করে নিন । তারপর পরিষ্কার সুতির মোজা পরে ঘুমাতে যান । খুব বেশি টাইট মোজা পড়বেন না , যে মোজার ইলাস্টিক ঢিলা হয়ে গেছে সেগুলো পড়তে পারেন ।

আরো পড়ুন  ত্বকের দাগ দূর করতে ১৫টি টিপস

ফাটা গোড়ালির সমস্যা দূর করতে ১ সপ্তাহের ট্রিটমেন্ট মেনে চলুন ।
রাতে ঘুমানোর আগে ২০ মিনিট পা গরম পানিতে ডুবিয়ে রাখুন , পানিতে শ্যাম্পু(Shampoo) বা লিকুইড সাবান মিশিয়ে নিন । গরম পানি পায়ের মরা চামড়া নরম করতে সাহায্য করবে । এবার হিল স্ক্রাবার দিয়ে গোড়ালি(Ankle) হালকা করে ঘষে নিন । এতে মরা চামড়া উঠে আসবে । এবার পা(Legs) ধুয়ে নিয়ে পায়ে ক্রিম লাগিয়ে নিন । এবার সুতির মোজা পরে ঘুমাতে যান । ১ সপ্তাহ ধরে এই নিয়ম মেনে চলুন । গোড়ালির জন্য বিশেষ ক্রিম ও পাওয়া যায় , সেটা ব্যবহার করতে পারেন ।

– গোড়ালি যদি বেশি ফেটে রক্ত বের হয় তাহলে দেরী না করে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *