মসৃণ, উজ্জ্বল ও নিখুঁত ত্বক পেতে

মসৃণ, উজ্জ্বল ও নিখুঁত ত্বক পেতে চকলেটের ৩টি ফেইস মাস্ক

চকলেট খেতেতো আমরা সবাই ভালোবাসি, কিন্তু আপনি কি জানেন যে আপনার ত্বক ও কিন্তু চকলেট ভালোবাসে! অবাক হচ্ছেন? হ্যাঁ, কারণ ডার্ক চকলেটে আছে এমন সব উপাদান যা ত্বকের(Skin) যত্নে খুবই উপকারী। চকলেট মাস্ক সত্যই আপনাকে দিতে পারে উজ্জ্বল, সুন্দর ও নিখুঁত ত্বক। তাই আপনাদের জন্য আজ জানাবো চকলেটের কিছু উপকারিতার কথা এবং ফ্ললেস স্কিন পেতে ৩ টি চকলেটের মাস্ক(Chocolate mask) নিয়ে। চলুন প্রথমে চকলেটের কিছু উপকারিতা জেনে নিই-

চকলেটের উপকারিতাসমূহ
(১) ডার্ক চকলেটে রয়েছে ক্যাসিন(Casein), পলিফেনলস এবং ফ্লেভ্যানলস(Flavanols)। এই অর্গানিক উপাদানগুলো পাওয়ারফুল অ্যান্টি-অক্সিডেন্টস তৈরি করে। ডার্ক চকলেট তৈরি করা হয় কোকো বীজ থেকে যা প্রচুর অ্যান্টি-অক্সিডেন্টসমৃদ্ধ একটি ফল। একটি গবেষণায় দেখা যায়, এই কোকো বীজে রয়েছে অনেক ফ্লেভ্যানলস, পলিফেনলস(Polyphenols) এবং অন্যান্য পুষ্টিগুণ যা অন্য ফলের তুলনায় অধিক গুণসম্পন্ন।

(২) ডার্ক চকলেট সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি থেকে আপনার ত্বককে রক্ষা করে। এতে থাকা ফ্লেভ্যানলস শুধুমাত্র ইউভি(UV) রশ্মি থেকেই রক্ষা করে এমনটা নয়, এটি আপনার ত্বকের রক্ত সঞ্চারণ(Blood transfusion of the skin) বাড়িয়ে তোলে।

আরো পড়ুন  ত্বকের তারুণ্য ধরে রাখতে সাহায্য করবে যে ৭টি প্রাকৃতিক উপাদান

(৩) ডার্ক চকলেট স্ট্রেস হরমোনের মাত্রা হ্রাস করতে সাহায্য করে। এই স্ট্রেস হরমোনের কারণে ত্বকের শুষ্কতা এবং রিংকেল দেখা দেয়। স্ট্রেস হরমোনের কিছু সাইড ইফেক্ট যার মাত্রা হ্রাস করে ডার্ক চকলেট(Dark Chocolate)।

(৪) ম্যাসাচুসেটস বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণায় পাওয়া গেছে, ডার্ক চকলেটে থাকা পলিফেনলস ত্বকের(Skin) যে কোন প্রদাহ এবং অন্যান্য এলার্জি নিরাময় করতে সক্ষম।

ডার্ক চকলেটের উপকারিতাতো দেখে নিলেন, এবার তাহলে চলুন দেখে নেয়া যাক অসাধারণ ৩ টি চকলেটের মাস্ক তৈরির উপকরণ ও পদ্ধতি নিয়ে । চকলেটের এই মাস্ক বা প্যাকগুলো আপনাকে সুন্দর ত্বক পেতে সাহায্য করবে।

১) চকলেট ও দারুচিনির ফেইস মাস্ক
উপকরণঃ ১ টেবিল চামচ কোকো পাউডার, ১ টেবিল চামচ মধু(Honey), এক চিমটি দারুচিনি গুঁড়া।

চকলেটের মাস্কটি তৈরি পদ্ধতিঃ
একটি বাটিতে কোকো পাউডার, দারুচিনি গুঁড়া(Cinnamon powder) ও মধু ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। একটি মসৃণ পেস্ট তৈরি করুন। পেস্ট তৈরি হয়ে গেলে আপনার মুখ এবং ঘাড়ে এটি প্রয়োগ করুন। তারপর ২০-৩০ মিনিটের জন্য এটি রেখে দিন এবং শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। আপনি এই প্যাকটি সপ্তাহে ২ বার ইউজ করতে পারেন। চকলেট এবং মধু প্রচুর অ্যান্টি-অক্সিডেন্টসমৃদ্ধ, এগুলো ত্বকে ব্রণের প্রবণতা কমায় এবং ত্বকের ব্যাকটেরিয়া(Skin bacteria) ধংস করে।

আরো পড়ুন  মুখ ধোয়ার সঠিক নিয়ম কানুন জেনে নিন

২) ডার্ক চকলেট ও দুধের ফেইস প্যাক
উপকরণঃ ২ বার ডার্ক চকলেট, ২/৩ কাপ দুধ, ১ চা চামচ সি সল্ট, ৩ টেবিল চামচ ব্রাউন সুগার। চকলেটের মাস্কটি তৈরি

চকলেটের মাস্কটি তৈরি পদ্ধতিঃ
একটি বাটির মধ্যে চকলেট বার দুটি গলিয়ে নিন। এবার এর সাথে যোগ করুন দুধ, ব্রাউন সুগার ও সি সল্ট। এবার ভালোভাবে সবগুলো উপকরণ মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটি এবার ঠাণ্ডা হতে দিন। তারপর মিশ্রণটি মুখে লাগিয়ে রাখুন ১৫ থেকে ২০ মিনিট। তারপর ভালোমতো শুকিয়ে গেলে ভালো করে ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটি সপ্তাহে ২ বার ব্যবহার করুন। এই ফেইস প্যাকে আছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি-অক্সিডেন্টস যা আপনার ত্বককে পরিপূর্ণ পুষ্টি যোগায় এবং ত্বকের(Skin) যে কোন ক্ষতি রোধ করে।

আরো পড়ুন  মুখের ত্বক দাগহীন উজ্জ্বল রাখার উপায় জেনে নিন

৩) চকোলেট এবং ক্লে ফেইস মাস্ক
উপকরণঃ ১/৪ কাপ কোকো পাউডার, ২ টেবিল চামচ মুলতানি মাটি, ২ টেবিল চামচ টক দই, ১ চা চামচ লেবুর রস(Lemon juice), ১ চা চামচ নারকেল তেল।

চকলেটের মাস্কটি তৈরি পদ্ধতি
উপরে উল্লিখিত সবগুলো উপকরণ খুব ভালো করে একটি বাটিতে মিশিয়ে নিন। এবার মাস্কটি আপনার মুখে ও ঘাড়ে লাগিয়ে রাখুন প্রায় ২০-২৫ মিনিট। শুকিয়ে গেলে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। মাস্কটি সপ্তাহে ২ বার ব্যবহার করুন।

এই মাস্কটি তে রয়েছে লেবুর রস এবং টক দই(sour yogurt) যা ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে দারুণভাবে কাজ করে। এই মাস্কটি ত্বককে গভীর থেকে পরিষ্কার করে এবং নারকেল তেল ত্বকের পোরগুলিকে ছোট করে ত্বকের স্মুদনেস বাড়ায়।

আপনার পছন্দের চকোলেট এবার খাওয়ার পাশাপাশি থাকুক রুপচর্চায়ও। কেননা আপনার স্কিনের ও অধিকার আছে চকোলেট টেস্ট করার, তাই না? আপনার স্কিনকে চকোলেটের টেস্ট করতে দিন, আর রেজাল্ট দেখুন আয়নায়!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *