ত্বকে উজ্জ্বলতার ভাব আনবে আলুর ফেসপ্যাক

আলুতে আছে ভিটামিন সি ও ভিটামিন (vitamin) বি কমপ্লেক্স, পটশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, ফসফরাস এবং জিঙ্ক। এই সকল উপাদান প্রাকৃতিক ব্লিচিং এজেন্ট হিসেবে কাজ করে এবং আমাদের ত্বকের উপরিভাগের রঙ হালকা করে, কালো দাগ দূর করতে তো এর তুলনা নেই এবং ত্বকে একটা সুন্দর উজ্জ্বলতা ভাব এনে দেয়।

ত্বকের যত্নে আলুর উপকারিতা:
ত্বকের কালো দাগ: ত্বকের যেখানে কালো দাগ, সেখানটায় আলুর রসের (juice) সঙ্গে লেবুর রস মিশিয়ে ১০ মিনিট লাগিয়ে রেখে ধুয়ে ফেলতে হবে। এভাবে নিয়মিত ব্যবহারে কালো দাগ চলে যাবে।

চোখের নিচের কালো দাগ: আলুর রস (juice) করে সেই রস (juice) তুলায় ভিজিয়ে নিয়ে চোখের নিচে লাগিয়ে শুকানো পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। তারপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। নিয়মিত ব্যবহার করলে চোখের নিচের কালো দাগ দূর হবে। আলুর রসের সাথে অলিভ অয়েল মিশিয়ে চোখের নিচে ও কোনায় প্রতিদিন পাঁচ মিনিট লাগিয়ে রাখতে হবে। তারপর শুকানোর পর ধুয়ে ফেলতে হবে।এভাবে করলে ত্বকের বলিরেখা চলে যাবে।

ত্বকের উজ্জলতা: আলুর রস ও শসার রস (juice) একত্রে মিশিয়ে ত্বকে লাগিয়ে রাখতে হবে। পরে ধুয়ে ফেললে ত্বকের উজ্জ্বল ভাব ফুটে উঠবে।চোখের ফোলা ভাব কমাতে তুলার বল ভিজিয়ে চোখের ওপর দিয়ে রাখতে হবে। চোখের ফোলা ভাব চলে যাবে। আলুর রসে (juice) তুলা ভিজিয়ে রেখে সেই তুলা মুখ ও চোখে কিছুক্ষণ ঘষে পরে মুখ ধুয়ে ফেলতে হবে। এতে করে ত্বক সজীব এবং চোখের ক্লান্তি ভাব দূর হবে।

আরো পড়ুন  দাগহীন ত্বকের জন্য দারুণ কার্যকরী এলোভেরা ফেসমাস্ক

শুষ্ক ত্বকে: শুষ্ক ত্বকে অনেক সময় লোশন বা ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করেও শুষ্কতা কমানো যায় না। এ ক্ষেত্রে প্রতিদিন এক গ্লাস আলুর রস (juice) পান করতে পারেন। আলুর রস ত্বকের শুষ্কতা কমায়।

তৈলাক্ত ত্বকের জন্য: তৈলাক্ত ত্বকের জন্য আলু অত্যন্ত উপকারী। একটি মাঝারি সাইজের আলু ভাল করে কুঁচি করে নিন । এরপর কুচানো আলু ভাল ভাবে চিপে আলুর রস (juice) বের করুন। আলুর এই রসের (juice) সাথে ২ চা চামচ মুলতানি মাটি মিশিয়ে একটি ঘন পেস্ট তৈরি করুন । এরপর এটি ত্বকে লাগিয়ে রাখুন, যতক্ষণ না পর্যন্ত এটি আপনার ত্বকে শুকিয়ে যায়। তারপর পানি দিয়ে ভাল ভাবে ধুয়ে ফেলুন।

সন্তান নিতে চাইলে যেসব খাবার খাবেন
বিবাহিত দম্পতিদের পরম আকাংখিত ধন সন্তান (baby) । শুধু বংশ বিস্তার নয় বরং জীবনের পরিপূর্ণতার জন্য সন্তানকে (baby) অপরিহার্য মনে করেন সবাই। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে বন্ধ্যাত্বের হার বাড়ছে। সন্তানের বাবা মা হতে চাচ্ছেন কিন্তু সন্তান আসছে না, এমন দম্পতির পরিমাণ আমাদের আশে পাশে কম নয়। কেন সন্তান (baby) আসছে না এমন প্রশ্নের জবাবে অনেক কথাই বলা যায়।

আরো পড়ুন  নিখুঁত ত্বক পেতে গ্রিন টি দিয়ে তৈরি করুন দারুন ৪টি ফেসপ্যাক

তবে চিকিৎসা বিজ্ঞান বলছে সন্তান (baby) গর্ভধারণের জন্য খাদ্যাভ্যস ও লাইফস্টাইলের মান কেমন তা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। যদি সন্তান (baby) নিতে চান তাহলে কোন ধরনের খাবার খাবেন বা কোন কোন খাবারগুলো বেশী খাওয়া উচিত আমরা আজ একুশে টেলিভিশন অনলাইনের পাঠকদের জন্য সেসব বিষয়ে আলাপ করব।

চিকিৎসা বিজ্ঞান জানাচ্ছে, ব্যস্ত জীবনযাপন, অনিয়মিত ডায়েট এবং স্ট্রেসের কারণে দিন দিন মানুষের শুক্রানু বা স্পার্মের পরিমাণ কমছে। দিন দিন এই সমস্যা (problem) বাড়ছে। এক্ষেত্রে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া অবশ্যই প্রয়োজন। পাশাপাশি বীর্যে শুক্রানুর পরিমাণ বাড়াতে খাদ্যতালিকায় রাখতে পারেন এই খাবারগুলো।

ডিম

বন্ধ্যাত্ব মোকাবিলায় খুবই উপকারী ডিম। এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন (vitamin) ই যা শুধু শুক্রাণুর সংখ্যাই বাড়ায় না, কার্যকারিতাও বৃদ্ধি করে। নিউট্রিশনিস্টদের মতে, নিয়মিত ডিম খেলে শুক্রাণুর সক্রিয়তাও ধীরে ধীরে বাড়তে থাকে।

পালং শাক

সক্রিয় শুক্রাণুর জন্য জরুরি ফোলিক অ্যাসিড। শরীরে ফোলেটের মাত্রা কমতে থাকলে শুক্রাণুর(Sperm) সংখ্যাও কমে যায়। নিউট্রিশনিস্টদের মতে, পালং শাকে থাকে প্রচুর পরিমাণ ফোলিক অ্যাসিড যা শুক্রাণু কার্যকারিতা অনেক বাড়ায়। তা ছাড়া পালং শাক খেলে শরীরে রোগ প্রতিরোধ শক্তিও অনেক বৃদ্ধি পায়।

কলা

বিশেষজ্ঞেরা জানাচ্ছেন, নারীদের উর্বরতা শক্তি বৃদ্ধির জন্য যেমন প্রয়াস করা হয়, তেমনটা পুরুষদের জন্য করা হয় না। অথচ পরিসংখ্যান বলছে ৩০-৫০ শতাংশ বন্ধ্যাত্বের জন্য দায়ি পুরুষেরাই। নিউট্রশনিস্টদের মতে, পুরুষদের উর্বরতা শক্তি বৃদ্ধির জন্য কলা উপকারী। এতে রয়েছে ভিটামিন (vitamin) বি১ ও সি যা হেলদি স্পার্ম তৈরি করতে সাহায্য করে।

আরো পড়ুন  রূপচর্চায় চামচের অজানা ৮টি ব্যবহার জেনে নিন

ডার্ক চকোলেট

জানেন কি, শুক্রাণুর(Sperm) কর্মক্ষমতা বাড়ায় ডার্ক চকোলেট? এতে রয়েছে অ্যামিনো অ্যাসিড এল-আর্জিনিন এইচসিএল যা শুক্রাণুর (Sperm) সংখ্যা বাড়ায়। পুরুষদের বন্ধ্যাত্ব দূর করতে যা বিশেষ ভূমিকা নেয়।

ব্রোকোলি

পুরুষ হোক বা নারী, উর্বরতা শক্তি বাড়াতে ব্রোকোলির জুড়ি নেই। এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন (vitamin) বি৯ বা ফোলিক অ্যাসিড যা শুক্রাণুর (Sperm)কর্মক্ষমতা বাড়ায়। বিশেষজ্ঞদের মতে, নিয়মিত ব্রোকোলি খেলে স্পার্ম কাউন্ট প্রায় ৭০ শতাংশ বৃদ্ধি পায়।

বেদানা

বেদানায় রয়েছে প্রচুর পরিমাণ অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, যা শরীরে রোগ প্রতিরোধ শক্তি গড়ে তোলার পাশাপাশি শুক্রাণুর (Sperm)সক্রিয়তাও বাড়ায়। নিউট্রিশনিস্টরা জানাচ্ছেন, প্রতিদিন বেদানার রস খেলে পুরুষ ও নারীদের উর্বরতা শক্তি অনেক বৃদ্ধি পায়।

আখরোট

আখরোটে রয়েছে ওমেগা ৩-ফ্যাটি অ্যাসিড এবং আলফা-লিনোলেনিক অ্যাসিড বা সংক্ষেপে এএলএ। এএলএ-র মতো ওমেগা অ্যাসিডের পাশাপাশি আখরোটে আছে উচ্চমাত্রায় অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং বহু মূল্যবান মাইক্রো নিউট্রিয়েন্টস। পুরুষদের উর্বরতা বাড়াতে সাহায্য করে এই সব উপাদনগুলি।

(লেখক: ডায়েটেশিয়ান ও নিউট্রিশিয়ানিস্ট, বিআরবি হাসপাতাল, পান্থপথ, ঢাকা। তিনি নিয়মিত একুশে টেলিভিশন অনলাইনে স্বাস্থ্য পরামর্শ দিয়ে থাকেন।)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *