বিবি ও সিসি ক্রিম এর সঠিক ব্যবহার জেনে নিন

সময়ের আলোচিত প্রসাধনী বিবি ও সিসি ক্রিম। বিবি ও সিসি ক্রিম(BB and CC cream) ক্রিম নানা ব্র্যান্ড, ফর্মুলা, শেড আর দামে পাওয়া যায়। আমরা অনেকেই জানি না, এই ক্রিমের বিশেষত্ব কী, ব্যবহার প্রণালিই বা কী রকম। বিবি ও সিসি ক্রিম এর সঠিক ব্যবহার জানাতে আজকের এই পোস্টটি।

বিবি ক্রিম –
ব্লেমিশ বাম বা বিউটি বামের সংক্ষিপ্ত রূপ বিবি ক্রিম। শুরুতে এটা স্কিন লেজার ট্রিটমেন্টের জন্য ব্যবহার হতো। এখন বিবি ক্রিম বাজারে মাল্টি-টাস্কার ক্রিম হিসেবে ব্যবহার হয়। বিবি ক্রিমের বিশেষত্ব হলো এটি ত্বক(Skin) পরিচর্যা ও মেকআপ উপাদানের সংমিশ্রণে তৈরি। এই ক্রিম আপনাকে দেবে অল-ইন-ওয়ান স্কিন কেয়ার। অমসৃণ ত্বক থেকে শুরু করে রোদ থেকে ত্বককে বাঁচায় এবং ব্লেমিশ, ব্রণ(Acne) ও দাগ প্রতিরোধ এবং ময়েশ্চারাইজ করে।

আরো পড়ুন  মাত্র ১০ মিনিটে পার্টি মেকআপ করার সহজ উপায়

সিসি ক্রিম –
কালার কারেকশন অথবা কমপ্লেকশন কেয়ারের সংক্ষিপ্ত রূপ সিসি ক্রিম। বিবি ক্রিম(BB Cream) সব ধরনের স্কিন টোনের সঙ্গে মানায় না, ত্বক তৈলাক্ত করে ফেলে, ঠিকমতো মেকআপ নেওয়া যায় না। এসব সমস্যা সমাধান দিতেই আসে সিসি ক্রিম। সিসি ক্রিম সহজেই ত্বকে বসে যায়, বিবি ক্রিমের তুলনায় বেশি মেকআপ(Makeup) কাভারেজ দেয়, ত্বক তৈলাক্ত হয় না। অনেক সময় স্থায়ী হয়। সিসি ক্রিমে এমন এক উপাদান আছে, যা ত্বকের কোলোজেন বাড়াতে সাহায্য করে। কোলোজেন ত্বক মসৃণ, উজ্জ্বল এবং ত্বক কোষের আয়ু বাড়ায়।

বিবি ক্রিম বা সিসি ক্রিম যেভাবে কাজ করে –
এক অর্থে বিবি ও সিসি ক্রিম সাধারণ ময়েশ্চারাইজারের সঙ্গে ফাউন্ডেশন(Foundation) ও সানস্কিনের সংমিশ্রণ। তার মানে এই নয় যে এগুলো আপনার দৈনন্দিন ব্যবহারের ময়েশ্চারাইজার ও সানস্কিনের পরিবর্তে। এর মধ্যে থাকা উপাদান আপনাকে সুরক্ষা দেওয়ার জন্য যথেষ্ট নয়। ক্রিম শুধু আপনি ফাউন্ডেশনের পরিবর্তে ব্যবহার করতে পারেন। তার পরও মুখে যদি গাঢ় দাগ থাকে, তাহলে কনসিলারের বিকল্প নেই। বিবি বা সিসি ক্রিম দুটিই মেকআপের বেইস প্রাইমার হিসেবে ভালো কাজ করে।

আরো পড়ুন  ত্বক উজ্জ্বল ও ফর্সা করার একটি ঘরোয়া উপায়

বিবি বা সিসি ক্রিমের অসুবিধা হলো শুধু দুটি শেডে পাওয়া যায়। বিবি ও সিসি ক্রিম (BB and CC cream) ছেলেদের কাছেও জনপ্রিয়। এ ছাড়া সহজে ব্যবহার করা যায়। এমনকি যাঁরা মেকআপ নিতে আগ্রহী কিন্তু চান না সেটা বোঝা যাক, তাঁদের কাছেও জনপ্রিয়।

কেনার সময় খেয়াল রাখুন –
* হাতের উল্টো পাশের ত্বক ও ক্রিমের রং মিলিয়ে নিন। খেয়াল করুন আপনার ত্বকের সঙ্গে ক্রিমের টেক্সার ঠিকমতো মিশছে কি না।
* তৈলাক্ত ত্বকের জন্য লুমিনাস এবং শিমার ফর্মুলা বাদে কিনুন। তৈলাক্ত ত্বকের(Oily skin) জন্য সবচেয়ে ভালো ম্যাট ও জেল বেইসড ফর্মুলা।
* শুষ্ক এবং স্বাভাবিক ত্বকের জন্য লুমিনাশ, শিমার, যেকোনো ফর্মুলা বেছে নিতে পারেন।

বিবি ক্রিম কিনবেন যদি আপনার ত্বক হয় –
* সংবেদনশীল
* শুষ্ক
* রোদে পোড়া
* একনে ও ব্রণে ভরা

আরো পড়ুন  নখের হলদেটে ভাব দূর করার সহজ উপায়

সিসি ক্রিম কিনবেন যদি আপনার ত্বক হয় –
* তৈলাক্ত
* অসমান
* দাগ বহুল
* ফাইন লাইন এবং বয়সজনিত ভাঁজে ভরা।

ব্যবহার বিধি –
বিবি বা সিসি ক্রিম একবারে অল্প করে পুরো মুখে(Face) মিশিয়ে দিন। কিছুটা বেশি কাভারেজ চাইলে দ্বিতীয়বার ব্যবহার করুন। কিন্তু মনে রাখবেন, অতিরিক্ত হয়ে গেলে মুখে মিশবে না, উল্টো মাস্কের মতো দেখাবে। ইচ্ছে করলে ব্রাশের সাহায্যেও লাগাতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *