চটজলদি উজ্জ্বল ও দীপ্তিময় সুন্দর ত্বক পাওয়ার সহজ উপায়

চটজলদি উজ্জ্বল ও দীপ্তিময় সুন্দর ত্বক (skin) পাওয়ার সহজ উপায়!

অফিস থেকে বাড়ি ফিরেই শুনলেন রাতে বরের সাথে দাওয়াতে যেতে হবে। কিন্তু শেষবার ফেসিয়াল করেছেন প্রায় মাসখানেক আগে। তার ওপর সারাদিনের ক্লান্তি। এভাবে কি আর দাওয়াতে যাওয়া যায়। এরকম ত্বকে (skin) মেকআপ করলেও সেটা ভালোভাবে বসবে না। খুব একটা সময়ও হাতে নেই। তাহলে উপায়? আপনার হাতের কাছেই রয়েছে এমন কিছু উপাদান যেগুলো ত্বকের (skin) জেল্লা ফিরিয়ে আনে কয়েক মিনিটেই। ত্বক পরিষ্কারের পাশাপাশি ত্বককে উজ্জ্বলও করে তোলে ।

এই প্যাকগুলো লাগানোর আগে হালকা হাতে ২/১ মিনিট স্ক্রাব করে নিন মুখটা। কেননা ত্বকের (skin) ডেডসেল থাকলে যতকিছুই করা হোক না কেন, ত্বককে নির্জীব মনে হবে।

১) টকদই

আমার নিজের মতে টকদই ত্বকের সবচেয়ে ভাল বন্ধু। আর কিছু হাতের কাছে না থাকলে মুখটা ভালোভাবে ক্লিনজার দিয়ে পরিষ্কার করে নিয়ে টকদই মেখে নিন সারা মুখে। ১৫ মিনিট পরে ঠাণ্ডা পানিতে মুখ ধুয়ে নিন। ত্বকে (skin) একটা ইনস্ট্যান্ট গ্লো চলে আসবে।

২) কলা ও মধুর ফেসপ্যাক

শুষ্ক ত্বকের (skin) জন্য এটা খুবই উপকারি একটা প্যাক। একটা কলা ভালোভাবে ম্যাশ করে নিয়ে তাতে ২ চামচ মধু মিশিয়ে পুরো মুখে লাগিয়ে রাখুন ২০ মিনিট। তারপরে ঠাণ্ডা পানিতে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

৩) ওটমিল ও দুধের প্যাক

এখন প্রায় সবার বাড়িতেই ওটমিল থাকে। এক চামচ ওটমিল সামান্য গরম পানিতে ১০ মিনিট ভিজিয়ে রাখুন। তারপরে ওটমিলের সাথে পরিমান মত দুধ মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। তারপর সারা মুখে লাগিয়ে শুকিয়ে যাওয়ার আগ পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। তারপর হালকা হাতে ঘসে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন। হাতে একটু আধা ঘণ্টার মত সময় থাকে তাহলে ভেজানো ওটমিল এর সাথে মিশিয়ে নিন ৫/৭ ফোঁটা গোলাপজল, ৩/৪ চামচ টকদই, সামান্য চন্দনের গুঁড়া। এই পেস্টটা মুখে লাগিয়ে রাখুন ২০ মিনিট। তারপরে হালকা ঘষে ঠাণ্ডা পানিতে মুখ ধুয়ে নিন। এই প্যাকটি লাগালে আলাদা করে মুখে স্ক্রাব ব্যবহার করার কোন প্রয়োজন নেই।

আরো পড়ুন  শীতে ত্বকের যত্নে ঘরোয়া ফেসপ্যাক

৪) টমেটো ও চিনির ফেসপ্যাক

একটা টমেটো ভালোভাবে ম্যাশ করে নিন। তারপর এতে এক চামচ চিনি মেশান। প্যাকটি মুখে লাগিয়ে রাখুন ১০ মিনিট। তারপরে হালকা হাতে ঘসে তুলে ফেলুন। টমেটোর এই প্যাকটি ব্যবহার করলে মুখ প্রায় ২-৩ ঘণ্টার মত উজ্জ্বল দেখাবে।

৫) পাকা পেঁপে

আপনার ফ্রিজে যদি থাকে পাকা পেঁপে তাহলে ত্বকের (skin) উজ্জ্বলতা নিয়ে আর কোন ভাবনাই নেই আপনার। এক টুকরো পাকা পেঁপে ভালোভাবে ম্যাশ করে নিন। এর সাথে মেশান কয়েক ফোঁটা গোলাপ জল, আধা চাচামচ চন্দনের গুঁড়ো আর যদি বাসায় অ্যালোভেরা থাকে, তাহলে একটু অ্যালোভেরার জেল। সব কিছু মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। পুরো মুখে প্যাকটি লাগিয়ে অপেক্ষা করুন ৩০ মিনিট। তারপরে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটি ত্বকের উপরের মৃত কোষ পরিষ্কার করবে। সারা দিন ক্লান্তির ছাপ দূর করতে এই প্যাকটির কোন জুড়ি নেই।

তাহলে জেনে নিলেন তো চটজলদি কীভাবে পাবেন উজ্জ্বল ও দ্যুতিময় ত্বক (skin) । এবার আপনি রেডি যেকোনো পার্টি বা উৎসবের জন্য। ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন।

আরো পড়ুন  হাত ও পা ফর্সা করার ১৮ টি প্রাকৃতিক সহজ পদ্ধতি

যে সময়ে নারীদের যৌন চাহিদা বাড়ে ! ডঃ তাহমিনা আক্তার
শারীরিক ঘনিষ্ঠতা বা যৌনতা দিয়েই প্রায় সব প্রেমের অবশ্যম্ভাবী পরিণতি হয়ে থাকে। সাধারণ এ ব্যাপারে নারীদের বুক ফাটে কিন্তু তবুও তারা মুখ ফুটে কিছু বলেন না।

তবে অনেক সময়েই মুখ ফুটে কিছু বলতে না পারলেও মনে মনে অদ্ভুত ‘‌সেক্সুয়াল (physical relation) ফ্যান্টাসি’‌-‌র ক্ষেত্রে নারী কিন্তু পুরুষের চেয়ে পিছিয়ে নেই। বরং এগিয়েই আছেন তারা।

শরীরী খেলায় (physical relation) মেতে ওঠার ক্ষেত্রে বিশ্বজুড়ে নারীদের ওপরে একটি সমীক্ষা চালিয়েছিল ব্রিটেনের একটি ওয়েবসাইট। নারীদের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল তাদের নিজেদের সবচেয়ে বিচিত্র যৌন কল্পনা সম্পর্কে। ওই সমীক্ষায়‌ উঠে এসেছে নানা বিচিত্র ইচ্ছার কথা।

তা থেকেই বেছে নেওয়া হল নারীদের সবচেয়ে অদ্ভুত ২৪ কামনার কথা-

১। সিনেমা হলে ঘনিষ্ঠ হতে পছন্দ করেন কোনও কোনও নারী। পুরুষরা রাজি থাকলে, সায় দিতে রাজি তারাও।

২। শারীরীক মিলনের (physical relation) পরে কপালে বা গালে চুম্বন চান অনেকে।

৩। বেডরুমের দরজা বন্ধ করা মাত্রই পুরুষসঙ্গী যদি উদ্দাম হয়ে ওঠেন, তাহলে সেটাও পছন্দ অনেকের।

৪। মিলনে (physical relation) পর ফের ফোর প্লে! এটাও অনেকে চান। তারা বলছেন এই ফোর প্লে-‌ই হয়তো হয়ে উঠতে পারে আরও একবার মিলনের সূত্রপাত।

৫। জীবনে নানা টেনশন থাকতেই পারে। তবে মিলনের (physical relation) সময় সেসব নিয়ে কথা বলতে চান না কোনও নারীই।

৬। আঁচড়ে কামড়ে দেওয়ার মতো হিংস্র মিলন পছন্দ করেন অনেক মুখচোরা নারীও।

৭। মিলন যে উপভোগ করছেন, সেটা প্রতিবেশীদের পরোক্ষে জানাতে পছন্দ করেন অনেকেই। মানে ঘনিষ্ঠতার সময় সবাইকে জানান দেন উদ্দাম চিৎকার দিয়ে।

আরো পড়ুন  ঘরোয়া তিনটি উপাদান দিয়ে খুব সহজে ব্ল্যাকহেডস দূর করুন

৮। কেউ কেউ আবার চান মিলনের (physical relation) পুরোটাই হোক দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে।

৯। শুনতে অবাক লাগলেও সত্যি, কেউ কেউ চান, আদর করতে করতে সঙ্গী তাঁকে বিছানা থেকে ফেলে দিন।

১০। রোম্যান্টিক গান ছাড়া ঘনিষ্ঠ হওয়ার কথা ভাবতেই পারেন না অনেকে।

১১। আদর শুরু হক ড্রয়িংরুমে, সেখান থেকে বেডরুম, আবার শেষটা হোক স্নানের ঘরে— এমন যৌনতাও পছন্দ অনেক নারীর।

১২। বাথটাবে এসেনশিয়াল অয়েল ও ফুলের পাঁপড়ির মাঝে সেক্স করতে ভালোবাসেন কিছু অতি রোমান্টিক নারী।

১৩। কেউ কেউ কল্পনা করেন, যৌনতার সময় সঙ্গী তাকে শূন্যে ছুড়ে দেবেন। আবার লুফে নেবেন সযত্নে।

১৪।এমনিতে টিপটপ। কিন্তু যৌনতার সময় বিছানা পরিষ্কার কিংবা অগোছাল কি না, সেটা নিয়ে ভাবতে চান না কোনও নারীই।

১৫। যৌনতার সময়‌ ফোন নয়।‌ বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ফোন ধরতে নারাজ থাকেন মহিলারা।

১৬। যৌনতার সময় কেউ কেউ আবার সঙ্গীর নাম ধরে চিৎকার ভালবাসেন।

১৭। চোখে চোখ রেখে যৌনতা উপভোগ করেন অনেকে।

১৮। যতক্ষণ যৌনতা, ততক্ষণ চুমু। এই ধরনের রোম্যান্টিক মিলন (physical relation) চান অনেকে।

১৯। কিছু নারী চলন্ত গাড়িতে যৌনতা পছন্দ করেন।

২০। অনেকেই চান, তার পুরুষ সঙ্গী যৌনতার সময় পোশাক খুলতে অপটু হবেন।

২১। সঙ্গীর জরুরি কাজে বিঘ্ন ঘটিয়ে যৌনতা উপভোগ করেন অনেকে নারী।

২২। দীর্ঘমেয়াদি মিলন (physical relation) উপভোগ করেন প্রায় সকলেই।

২৩। মোমবাতির গলে যাওয়া মোম মেখে মিলিত হতে চান, এমন নারীও আছেন।

২৪। মদ্যপ অবস্থায় মিলিততে ভালোবাসে অনেক নারী।‌

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *