ত্বক ফর্সা করতে দারুণ ২টি ফেসপ্যাক

ঘরোয়া কিছু প্যাক ব্যবহার করে খুব সহজেই চেহারার ক্লান্তি ভাব দূর করে ত্বক(Skin) এর উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করা যায়। কীভাবে? আসুন জেনে নিই ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে এমন দুটি ফেস প্যাক(Face pack)। বেড়াতে যাওয়ার আগে লাগিয়ে নিতে পারেন এর যেকোন একটি। আর এক নিমিষে পেয়ে যান উজ্জ্বল প্রাণবন্ত ফর্সা ত্বক।

কলা পেঁপের ফেস প্যাক:

১ টুকরো পেঁপে(Papaya)

১ টুকরো কলা(Banana)

১/৪ চাচামচ লেবুর রস(Lemon juice)

প্রণালীঃ
পেঁপে, কলা ভাল করে মিশিয়ে পেষ্ট করে নিন। এবার এতে লেবুর রস (Lemon juice) দিয়ে আবার ভাল করে মেশান। প্যাকটি ত্বকে ভাল করে লাগিয়ে শুকানোর জন্য অপেক্ষা করুন। ১৫ মিনিট পর প্যাক শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ভাল করে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

যেভাবে কাজ করেঃ
পেঁপেতে এক প্রকার এনজাইম আছে যা ত্বকের রঙ(Skin color) উজ্জ্বল করে, দাগ দূর করে থাকে। ফ্রুট ফেস প্যাক সব ধরনের ত্বকের জন্য উপযোগী হয়ে থাকে। তৈলাক্ত ত্বকের অতিরিক্ত তেল শুয়ে নিতে ত্বককে মসৃন করতেও এই প্যাকের জুড়ি নেই।

আরো পড়ুন  ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধিতে ভেষজ উপাদান

কলা পেঁপের ফেস প্যাক:

বেসন

হলুদ

মধু

লেবুর রস

প্রণালীঃ

− ২ চা চামচ বেসন, ১ চা চামচ মধু(Honey), ১/৪ চা চামচ হলুদ গুঁড়া(Yellow powder), এবং ১/২ চা চামচ লেবুর রস দিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন।

− খুব ভাল করে মিশিয়ে নিতে হবে যাতে বেসনের কোন দানা না থাকে।

− এবার মুখ পানি দিয়ে ধুয়ে নিন।

− মুখ শুকানোর পর প্যাকটি লাগিয়ে ফেলুন।

− ২০ মিনিট পর প্যাক শুকিয়ে গেলে ঠান্ডা পানি(Cold water) দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

− সাথে সাথে আপনি পেয়ে যাবেন উজ্জ্বল ত্বক।

যেভাবে কাজ করেঃ
বেসনে আছে প্রোটিন। আর হলুদ এবং লেবুর রসে আছে স্কিন ব্লিচ করার উপাদান। যা ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে থাকে। মধু ত্বক ময়েশ্চারাইজ(Moiseschreiser) করে ভিতর থেকে ত্বকে গ্লো নিয়ে আসে। এই প্যাকটিও সব ধরনের ত্বকে কার্যকরী। তবে সংবেদনশীল ত্বকের অধিকারীরা লেবুর রসের পরিমাণ কম দেবেন।

আরো পড়ুন  প্রাকৃতিক উপাদানে ত্বকের ব্লিচ করার উপায় জেনে নিন

ত্বকের কিছু যত্নঃ
ত্বক পরিষ্কারে সাবান বিহীন পণ্য ব্যবহারঃ
আপনি ত্বক পরিষ্কারক হিসেবে অবশ্যই সাবান বিহীন অর্থাৎ সোপ ফ্রি ফেস ওয়াশ(Face wash) ব্যবহার করবেন। সাবান আপনার ত্বক এর স্বাভাবিক দীপ্তি অনেকটাই কমিয়ে দেয়।

নখ দিয়ে ত্বকের শুষ্কতা পরিমাপ করুনঃ সব সময় হাতে কিংবা পায়ের ত্বকে নখ দিয়ে হালকা আচর কেটে দেখুন সেখানে কি সাদা ভাব ফুটে উঠছে কিনা? যদি সাদা দাগ দেখা যায় তবে বুঝতে হবে আপনার ত্বক শুষ্ক। শুষ্ক ত্বকের(Skin) সাথে যায় এমন সব জিনিস ত্বকে প্রয়োগ করতে হবে। আর যদি ত্বক হয় তৈলাক্ত তবে তৈলাক্ত জিনিস পরিহার করতে হবে।

মুখের ত্বকের মতই গলা এবং পিঠের যত্ন নিনঃ অনেকেই মনে করেন কেবল মুখের ত্বক এর যত্ন মানেই ত্বক এর যত্ন। বাস্তবিক আপনার সম্পূর্ণ শরীর জুড়েই ত্বকের অবস্থান আপনাকে শরীরের সব জায়গায় সমান যত্ন নিতে হবে। বিশেষ করে আপনি যখন বাইরে যান, তখন আপনার ঘাড়(Neck) কিংবা গলায় সূর্যের আলোর প্রভাব অনেক বেশী পড়ে, একই সাথে এই জায়গায় ময়লাও অনেক বেশী হয়। সুতরাং এসব যায়গায় ঠিকভাবে যত্ন নিতে হবে। গরমের দিনে বাইরে থেকে এসেই ঘাড়ে একটি টাওয়েল ঠাণ্ডা পানিতে ভিজিয়ে লাগান – এতে আপনার ঘাড় এবং মাথা উভয়ই শীতল থাকবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *