ঠোঁটের উপরের অবাঞ্ছিত লোম দূর করুন সহজ ৫টি উপায়ে

মুখের অবাঞ্ছিত লোম(Unwanted hair) সমস্যায় ভুগে থাকেন নারী-পুরুষ অনেকেই। বিশেষত নারীদের হরমোন সংক্রান্ত সমস্যার কারণে ঠোঁটের উপরে লোম দেখা দেয়। আর এই লোমের কারণে পড়তে হয় বিড়ম্বনায়। ঠোঁটের উপর, গাল, চিবুক বিভিন্ন স্থানে অবাঞ্ছিত লোম দেখা দেয়। এই অবাঞ্ছিত লোম(hair) দূর করার জন্য রয়েছে কিছু স্কিন ট্রিটমেন্ট। কিন্তু এই ট্রিটমেন্টগুলো যেমন ব্যয়বহুল, তেমনি কষ্টদায়ক। আবার এই ট্রিটমেন্টগুলোর রয়েছে কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া। তাই ঘরোয়া উপায়ে দূর করে ফেলুন মুখের অবাঞ্ছিত লোম কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়াই!

১। বেসন এবং হলুদের প্যাক (Besan and Yellow Pack)
এক চামচ বেসন, এক চিমটি হলুদ গুঁড়া(Yellow powder) এবং পরিমাণমত দুধ মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। এই পেস্টটি ঠোঁটের উপরে লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি প্রাকৃতিক ভাবে ঠোঁটের উপরের লোম দূর করে দেবে। এটি সপ্তাহে দুই তিন বার ব্যবহার করুন।

আরো পড়ুন  রূপচর্চায় কাঁচা হলুদের ৯টি জাদুকরী ব্যবহার

২। ডিমের সাদা অংশ (The white part of the egg)
ঠোঁটের উপরে অংশের লোম দূর করতে ডিমের সাদা অংশ বেশ কার্যকর। একটি ডিমের সাদা অংশ, কর্ণ ফ্লাওয়ার(Corn Flowers) এবং চিনি ভাল করে ফেটে নিন। এবার এই পেস্টটি ঠোঁটের উপর লাগিয়ে রাখুন। ৩০ মিনিট পর শুকিয়ে গেলে এটি তুলে ফেলুন। ভাল ফল পেতে এটি সপ্তাহে তিনবার ব্যবহার করুন। এক মাসের মধ্যে আপনি দেখতে পাবেন আপনার লোম অনেকটা কমে এসেছে।

৩। চিনি (Sugar)
ঘরোয়া ওয়াক্সিং করার অন্যতম উপাদান হল চিনি। চিনি অবাঞ্ছিত লোম দূর করে এবং নতুন লোম জন্মাতে বাঁধা দিয়ে থাকে। একটি প্যানে কিছু পরিমাণ চিনি এক মিনিট জ্বাল দিন। এর সাথে কিছু পরিমাণ লেবুর রস(Lemon juice) মিশিয়ে ঘন করে নিন। ঠান্ডা হয়ে গেলে এটি ঠোঁটের উপরে লাগিয়ে নিন। এবার একটি কাপড় দিয়ে চক্রাকারে ঘষুন এবং লোমের বিপরীতে টান দিন।

আরো পড়ুন  ত্বকে বয়সের ছাপ রোধ করতে ঘরোয়া কিছু উপায় জেনে নিন

৪। চালের গুঁড়ো এবং টকদই (Rice powder and coconut)
চালের গুঁড়ো এবং টক দই(sour yogurt) মিশিয়ে ঘন পেস্ট তৈরি করুন। এই পেস্টটি ঠোঁটের উপরে লাগিয়ে নিন। শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। এরপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

৫। ময়দা (Flour)
ময়দা, দুধ(Milk) এবং হলুদ গুঁড়ো মিশিয়ে ঘন পেস্ট তৈরি করে নিন। এবার এই পেস্টটি ঠোঁট এর উপরে লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে গেলে এটি টান দিয়ে তুলে ফেলুন। সবচেয়ে সহজ এবং কার্যকরী একটি উপায়ের মধ্যে এটি অন্যতম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *