ব্রণের দাগ দূর করার জন্য কোন ক্রিম ব্যবহার করা উচিৎ

মুখে ব্রণ এর দাগ (spot) হলে মুখশ্রী একদমই নষ্ট হয়ে যায়। ব্রণ সেরে গেলেও অনেক সময় দাগ (spot) থেকে যায় দীর্ঘ দিন। তবে এই দাগ (spot) দূর করতে অনেকে অনেক রকম প্রসাধনীর নাম বলে থাকেন। কিছু কিছু প্রসাধনী ভালো কাজ করলেও সেগুলো ক্যামিক্যালি প্রসেস করা হওয়ায় তার কিছু ব্যাড এফেক্ট থাকে। তাই যথা সম্ভব প্রাকৃতিক পদ্ধতিতে ব্রণের দাগ (spot) দূর করা উচিৎ । সে রকম কিছু উপায় বাতলে দেবো আজ।

অ্যালোভেরা জেল –

এলোভেরা মুখের দাগ (spot) ও তেলতেল ভাব দূর করতে অনেক ভালো কাজ করে থাকে। সম্ভব হলে ফ্রেস এলোভেরা জেল দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন নিয়মিত। তবে যারা একটু ঝামেলা থেকে মুক্তি পেতে চান তারা এলোভেরা জেল এর প্রসাধনী কিনতে পারেন। আবার যারা বাসায় তৈরি করতে চান এলোভেরা জেল তাদের জন্য আমাদের আগের একটি পোস্ট রয়েছে বাসায় এলোভেরা জেল তৈরি প্রণালী, সেটা দেখতে পারেন।

আরো পড়ুন  তৈলাক্ত ত্বকের জন্য বিশ্বসেরা ৫টি ফাউন্ডেশন চিনে নিন

দিনে দুইবার অ্যালোভেরা জেল মুখে লাগান এবং ৩০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এটি শুধুমাত্র ব্রণের দাগই (spot) দূর করবে না, বরং আপনার ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পাবে এবং টানটান হবে।

লেবু – লেবু একটি প্রাকৃতিক ব্লিচ। এটি দাগ (spot) তোলার জন্য খুব ভালো কাজ করে থাকে। প্রথমে লেবুর রসের সাথে সামান্য পানি নিয়ে একটি তুলোর বলের সাহায্যে ত্বকে ৩-৪ মিনিট ঘষুন। আর আপনার ত্বক যদি সেন্সিটিভ হয়ে থাকে তাহলে গোলাপ জল মিশিয়ে নিতে পারেন। সাথে একটা ই ক্যাপস্যুল মিশিয়ে ব্যবহার করতে পারেন। এই প্যাক ৭-১০ দিন ব্যবহার করুন। দেখবেন ত্বকের দাগ অনেকটাই কমে গিয়েছে। ন।

মুখে ব্রণের কালো দাগ (spot) দূর করতে –

আরো পড়ুন  ত্বকের কালো দাগ ও ব্ল্যাকহেডস দূর করতে কমলার খোসা

কাঁচা ব্রণে সমপরিমাণ লবঙ্গ, তুলসীপাতা, নিমপাতা, পুদিনাপাতা একসঙ্গে পেস্ট করে কিছুক্ষণ লাগিয়ে রাখলে সেখানে দাগ (spot) হবে না। শুষ্ক ত্বকের ব্রণের দাগ দূর করতে লবঙ্গ তেল খুব উপকারী। ব্রণ শুকিয়ে যাওয়ার পর মুখে চিনি আর দারুচিনি বাটা একসঙ্গে পেস্ট করে লাগাতে পারেন। লবঙ্গ বা দারুচিনি ত্বকে লাগানোর পর একটু জ্বালা করবে, এতে কোনো ক্ষতি নেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published.